অবশেষে করোনার টিকা আবিষ্কার!

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

নভেল করোনাভাইরাস (কভিড-১৯) প্রতিরোধী টিকা (ভ্যাকসিন) আবিষ্কারের দাবি করেছেন নাইজেরিয়ার গবেষকেরা। ‘কভিড-১৯ রিসার্চ গ্রুপের’ অর্থায়নে পাওয়া এই টিকাটি শতভাগ কার্যকর’ বলে শুক্রবার দেশটির গবেষকরা সংবাদ সম্মেলন করে ঘোষণা দেন।

টিকার এই খবর নাইজেরিয়ার তিনটি শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম ফলাও করে প্রচার করেছে। এর মধ্যে দেশটির সবচেয়ে প্রভাবশালী গণমাধ্যম বলে পরিচিত দ্য গার্ডিয়ানও (নাইজেরিয়ান গার্ডিয়ান) রয়েছে।

গবেষক দলের প্রধান আদলেকে ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ওলাদিপো কোলাওলে সংবাদ সম্মেলনে জানান, ভ্যাকসিনটি আফ্রিকান অঞ্চলের মানুষদের জন্য এখন প্রস্তুত করা হচ্ছে।

আফ্রিকার প্রসিদ্ধ গবেষক কোলাওলে বলছেন, অন্য অঞ্চলের মানুষদেরও ভ্যাকসিনটি সরবরাহ করা হবে।

এই ভ্যাকসিন তৈরির জন্য তহবিল দিয়েছে ট্রিনিটি ইমিউনোডিসিয়েন্ট ল্যাবরেটরি এবং হেলিক্স বায়োজেন কনসাল্ট।

গবেষকেরা এমন দাবি করলেও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে বিষয়টি নিয়ে এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কিছু জানানো হয়নি। ভ্যাকসিন আবিষ্কার যেমন জটিল প্রক্রিয়া তেমনি এর বৈশ্বিক অনুমোদন পাওয়াও বেশ সময় সাপেক্ষ। তাই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা কিংবা শীর্ষ স্থানীয় কোনো স্বাস্থ্য বিষয়ক জার্নাল থেকে স্বাধীন বিশ্লেষণের আগে এ বিষয়ে চূড়ান্ত কিছু বলা যাবে না।

নাইজেরিয়ার গবেষকেরা অবশ্য ভ্যাকসিনটি নিয়ে খুব আশাবাদী। সংবাদ সম্মেলনে তারা জোর গলায় বলেছেন, এটি কোনোভাবেই ভুয়া কিছু নয়।

নাইজেরিয়ার গণমাধ্যম জানিয়েছে, ভ্যাকসিনটির এখনো নাম ঠিক করা হয়নি। আন্তর্জাতিকভাবে বিচার-বিশ্লেষণ শেষে বাজারে আসতে আসতে সময় লাগবে দেড় বছরের বেশি।

কর্নস্টোন ইউনিভার্সিটির প্রফেসর জুলিয়াস ওলোকের দাবি, ‘আমরা বেশ কয়েকটি পরীক্ষা করে ভ্যাকসিনটির বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছি। ভ্যাকসিনের খবর সত্য। আফ্রিকানদের টার্গেট করে ভ্যাকসিনটি তৈরি করা হলেও অন্য জাতিগোষ্ঠীর জন্যও কাজ করবে। এটা অবশ্যই কাজ করবে। ফেইক হবে না। এই ফলাফল নিবেদনের অংশ। অনেক বৈজ্ঞানিক চেষ্টার পর আমরা সফল হয়েছি।’

সূত্রঃ দ্য গার্ডিয়ানও

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply