আজ রাত ১১টায় ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার মহারণ

ক্রীড়া জগত: চলতি বছরে দ্বিতীয়বারের মতো আজ অনুষ্ঠিত হবে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার সুপার ক্লাসিকো। শুক্রবার -১৫ নভেম্বর সৌদি আরবের কিং সৌদ ইউনিভার্সিটি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ম্যাচটি। বাংলাদেশ সময় রাত ১১টায় শুরু হবে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দ্বৈরথ।

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে এই ম্যাচের মধ্য দিয়েই আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরতে যাচ্ছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক মেসি। কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে বিদায় নেয়ার পর প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের জার্সিতে খেলবেন বার্সিলোনা তারকা। ওই আসরে রেফারিং নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় নিষিদ্ধ হয়েছিলেন মেসি। সেই নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিলের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়েই ফিরতে যাচ্ছেন বর্তমান ফিফা সেরা তারকা। কিন্তু ইনজুরি আক্রান্ত হওয়ায় ম্যাচটিতে খেলতে পারছেন না ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার

ফুটবলে চির প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দল ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। তারা মাঠে নামলেই যেন কোটি ভক্তের হৃৎস্পন্দন বেড়ে যায়। শুরু হয় পরস্পরের মধ্যকার স্নায়ুযুদ্ধ। সেই উত্তেজনা আবারো দেখতে যাচ্ছে ফুটবল বিশ্ব।

১৯১৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১১০ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। পরিসংখ্যান ঘুরে দেখা যায়, দুদলের মুখোমুখি লড়াইয়ে আর্জেন্টিনার থেকে কিছুটা এগিয়ে রয়েছে সেলেসাওরা। এ পর্যন্ত ৪৬ ম্যাচে জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে নেইমার-পেলে-রোনালদোরা। অন্য দিকে ম্যারাডোনা-বাতিস্তুতা-মেসিদের জয় ৩৯টি। ড্র হয়েছে ২৫ ম্যাচে।

১৯১৪ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ফ্রেন্ডলি ম্যাচের মাধ্যমে দুই দল প্রথম দেখায় ৩-০ গোলের ব্যবধানে জয় পায় আর্জেন্টিনা। দুই দলের লড়াইয়ে সবচেয়ে বড় জয়টাও আর্জেন্টাইনদের। ১৯৪০ সালে আকাশী নীল জার্সিধারীরা ব্রাজিলকে হারায় ৬-১ গোলের ব্যবধানে। অন্য দিকে ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় জয় ৬-২ গোলের ব্যবধানে।১৯৭৪ বিশ্বকাপ থেকে ১৯৭৬ সালে কোপা ডেল আতলান্তিকো পর্যন্ত টানা পাঁচ ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়েছিল ব্রাজিল। আর্জেন্টিনা সর্বোচ্চ টানা চার ম্যাচ জিতেছিল ১৯৪০ থেকে ১৯৪৫ সালের মধ্যে।মোট জয়ে ব্রাজিল এগিয়ে থাকলে কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনার আধিপত্যই বেশি। কোপাতে এই দুই দল মুখোমুখি হয়েছে সর্বমোট ৩৩ বার। আর্জেন্টিনার ১৬ জয়ের বিপরীতে ব্রাজিলের জয়ের সংখ্যা ১১। বাকি ৬ ম্যাচ ড্র হয়েছে। কোপাতে এ দুই দল প্রথম মুখোমুখি হয় ১৯১৬ সালের ১০ জুলাই। ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়। ১৯১৭ সালে আবারও এ দুই দল কোপায় পরস্পরের মুখোমুখি হয়। সে ম্যাচে ব্রাজিলকে ৪-১ গোলের ব্যবধানে হারায় আর্জেন্টিনা। তবে কোপার সর্বশেষ ম্যাচে জয় ব্রাজিলের। ২০১৯ সালের ২ জুলাইয়ে অনুষ্ঠিত সে ম্যাচে ব্রাজিল জয় পায় ২-০ গোলের ব্যবধানে।অন্য দিকে শিরোপার পরিসংখ্যানে দেখা যায়, সর্বোচ্চ পাঁচবার বিশ্বকাপ জিতেছে ব্রাজিল, বিপরীতে আর্জেন্টিনার ঝুলিতে বিশ্বকাপ রয়েছে দুইটি। আর কোপা আমেরিকায় ব্রাজিলের ৯ শিরোপার বিপরীতে আর্জেন্টিনার শিরোপা সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ১৪টি।আর্জেন্টিনা দুবার টানা 

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply