আল-ইয়াকীনের হাতে রোহিঙ্গা অপহরণ, গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার

ইমাম খাইরঃ

চিহ্নিত সন্ত্রাসী গ্রুপ আল-ইয়াকীন নেতার হাতে আবু সৈয়দ প্রকাশ আব্দুল্লাহ (৩৮) নামক রোহিঙ্গা অপহৃত হয়েছেন। পরে তাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন)।

রবিবার (১ আগষ্ট) দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে ৮ এপিবিএনের আওতাধীন উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্প-৭ ও ক্যাম্প ৮ ইষ্টের সংযোগ খালের পাড় থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়েছে।
তিনি বর্তমানে তুর্কি হাসপাতালে (রোহিঙ্গা ক্যাম্প ৯) চিকিৎসাধীন। তবে, ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি এপিবিএন। ভিকটিম রোহিঙ্গা আবু সৈয়দ প্রকাশ আব্দুল্লাহ ক্যাম্প-০৭ এর (ব্লক-ডি/৯) আলী আহাম্মদের ছেলে।

রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্প-০৭ (ব্লক-বি/৮, হেডমাঝি-মোঃ সাদেক) এর হামিদ হোসেনের ছেলে আল-ইয়াকীনের নেতা জোবায়ের প্রকাশ কালা জোবায়েরের হাতে তিনি অপহৃত হন।

সোমবার (২ আগষ্ট) সকালে খবরটি জানিয়েছেন ১৪ এপিবিএন অধিনায়ক (পুলিশ সুপার) মো. নাইমুল হক।
তিনি জানান, তথাকথিত আরসা নামধারী আল-ইয়াকীনের নেতা জোবায়ের (৩০) প্রকাশ কালা জোবায়েরের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জন রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী দুই তিন রাউন্ড গুলি ছুঁড়ে আবু সৈয়দ প্রকাশ আব্দুল্লাহকে অপহরণ করে।

সংবাদ পেয়ে নৌকার মাঠ পুলিশ ক্যাম্প কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযান চালায়।
ঘটনাস্থলের আশপাশ এলাকা এবং বের হওয়ার রাস্তাসহ সম্ভাব্য সন্ধিগ্ধ স্থান কর্ডন করে ব্লক রেইড পরিচালনা করে।

অভিযান টিমের তৎপরতায় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা ভীত হয়ে রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৭ ও রোহিঙ্গা ক্যাম্প ৮ ইষ্ট (৮ এপিবিএন আওতাধীন) এর সংযোগস্থলে খালের পাড়ে আবু সৈয়দ প্রকাশ আব্দুল্লাহকে রেখে পালিয়ে যায়। পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়।
ভিকটিমের বাম হাতে ও ডান পায়ে গুলির আঘাত আছে। তাকে তুর্কি হাসপাতালে (রোহিঙ্গা ক্যাম্প ৯) ভর্তি করা হয়েছে। অভিযানে স্থানীয় রোহিঙ্গারা সহায়তা করে।

সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলেও শনাক্ত ও গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানিয়েছেন অধিনায়ক মো. নাইমুল হক।
ঘটনা সংক্রান্তে গোয়েন্দা অনুসন্ধান ও প্রাথমিক তদন্ত সাপেক্ষে জড়িতদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply