ইউটিউব প্রধান ভেবে জাকারবার্গকে নোটিশ এক বাংলাদেশির

ইউটিউবে ‘আপত্তিকর ভিডিও কনটেন্ট’ প্রচারের অভিযোগ এনে মার্ক জাকারবার্গের কাছে ৫০ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সাবেক এক কর্মকর্তা, যিনি বেসরকারি টেলিভিশন একুশে টিভির (ইটিভি) সাবেক পরিচালকও।

সোমবার রেজিস্ট্রি ডাকযোগে জাকারবার্গের যুক্তরাষ্ট্রের ঠিকানায় এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন নোটিশদাতা জাহিদুল ইসলাম।

নোটিশে জাকারবার্গকে মার্কিন অনলাইন ভিডিও-শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ইউটিউবের প্রধান নির্বাহী উল্লেখ করা হয়েছে।

যদিও এই প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী আসলে সুসান ডায়ান উইচিটস্কি।

ইউটিউব গুগলের মালিকানাধীন যা বর্তমানে টেক দুনিয়ায় ফেসবুকের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী।

জাহিদুল ইসলাম নিউজবাংলাকে বলেন, তার পরিচিত এক সাংবাদিক আছেন যুক্তরাষ্ট্রে। তিনি তাকে নিশ্চিত করেছেন যে জাকারবার্গই ইউটিউবের নিয়ন্ত্রক।

সুসান উইচিটস্কির পরিচয় জানানো হলে জাহিদুল বলেন, ‘তিনি সম্ভবত দক্ষিণ এশিয়ার পরিচালক।’

ইউটিউবের ওয়েবসাইটের তথ্য জানালে জাহিদুল বলেন, ‘তাহলে কি ঠিকানা পাল্টে দেব?’

নোটিশে বলা হয়েছে, ইটিভি থেকে নানা অভিযোগে চাকরিচ্যুত সাংবাদিক ইলিয়াস হোসাইন সম্প্রতি ‘১৫ মিনিট’ অনুষ্ঠানে তার বিরুদ্ধে আপত্তিকর ভিডিও প্রচার করেছেন।

আগামী ৩০ দিনের মধ্যে ‘১৫ মিনিট’ এর কার্যক্রম বন্ধ ও ইলিয়াস হোসাইনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়াসহ সন্তোষজনক জবাব না পেলে ৫০ লাখ ডলারের ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করা হবে বলে নিউজবাংলাকে জানিয়েছেন নোটিশকারীর আইনজীবী সাফায়েত হোসেন সজিব।

এই আইনজীবী জানান, ইলিয়াস হোসাইন গত ১২ সেপ্টেম্বর ড. জাহিদুল ইসলামকে নিয়ে ‌‘উদ্দেশ্যমূলক, মিথ্যা’, ‘বানোয়াট ও আপত্তিকর’ ভিডিও সম্প্রচার করে জাহিদুলের মানহানি ঘটায়। এতে তার অপূরণীয় ক্ষতিসাধন হয়েছে, যার আনুমানিক মূল্য ৫০ লাখ ডলার।

এই ভিডিও ইউটিউবে প্রচার করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে ‘ইউটিউব এর সিইও জাকারবার্গকে’ গত ১৯ সেপ্টেম্বর ও ১৮ অক্টোবর দুটি চিঠি পাঠানো হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এ কারণে নোটিশ দেয়া হয়।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply