ইতিহাস ভেঙে জাপানের মিসাইল উৎক্ষেপণ, উদ্বিগ্ন উত্তর কোরিয়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ইতিহাস ভেঙে গত ছয় বছরের মধ্যে এবারই প্রথম জনসমক্ষে কোনো মিসাইল উৎক্ষেপণ করল এশিয়ার দেশ জাপান। বুধবার (৯ অক্টোবর) স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় স্বল্পপাল্লার ৩টি মিসাইল ইনসেপ্টর পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটির প্রতিরক্ষা বাহিনী।
কর্তৃপক্ষের বরাতে বার্তা সংস্থা ‘ইউপিআই’ জানায়, প্যাট্রিয়ট অ্যাডভান্সড ক্যাপাবিলিটি বা প্যাক-৩ নামে বুধবারের এই পরীক্ষা কার্যক্রমটি পরিচালিত হয়। এবার জাপানের রাজধানী টোকিওর পার্শ্ববর্তী রিনকাই দুর্যোগ প্রতিরোধ পার্ক থেকে তিনটি মিসাইল ইনসেপ্টর থেকে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো উৎক্ষেপণ করা হয়।
এর আগে ২০১৩ সালে সর্বশেষ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছিল উত্তর কোরিয়ার নিকটতম প্রতিবেশী এই দেশটি।
এ দিকে সংশ্লিষ্ট অনেকে টোকিওর এসব পদক্ষেপকে পিয়ংইয়ংয়ের প্রতি পাল্টা প্রতিশোধ হিসেবেই দেখছেন। কেননা গত কয়েক মাসে উ. কোরিয়া একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের মাধ্যমে আশপাশের অঞ্চলগুলোকে এক রকম উত্তেজনার মধ্যে রেখেছে। যার মধ্যে চলতি বছরের মে মাস থেকে গত ছয় মাসে দেশটি মোট ১১টি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে।
অপর দিকে জাপান সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়, বুধবারের এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাটি সম্পূর্ণ পূর্বপরিকল্পিতই ছিল। যা পিয়ংইয়ংকে কোনো রকমের ভয়-ভীতি কিংবা অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়ানোর জন্য নয়। যদিও এতে উত্তর কোরিয়াকে খানিকটা হলেও উদ্বিগ্ন হবে বলেই দাবি সংশ্লিষ্টদের।
মিসাইল উৎক্ষেপণের বর্ণনা দিয়ে জাপানি প্রতিরক্ষা বাহিনীর লেফটেন্যান্ট কর্নেল তাকাসুকি মিয়াদা বলেছিলেন, ‘আমাদের ধারণা, বহির্বিশ্বের আসন্ন হামলার দ্রুত জবাব দেওয়ার এই ক্ষমতা প্রদর্শনের মাধ্যমে আমরা আমাদের নাগরিকদের নিরাপদবোধ করাতে পারি। যে কারণে এখন থেকে এমন পদক্ষেপ আগামীতে আরও কয়েক দফায় চালানো হবে।’

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply