কক্সবাজার সদর-রামু স্টুডেন্টস ফোরামের উদ্যোগে বীচ ক্লীন-আপ প্রোগ্রাম সম্পন্ন

ডেস্ক রিপোর্ট:

কক্সবাজার সদর-রামু স্টুডেন্টস ফোরামের উদ্যোগে বীচ ক্লীন-আপ প্রোগ্রাম সম্পন্ন
জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়স্থ কক্সবাজার সদর-রামু স্টুডেন্টস ফোরামের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হয়েছে সমুদ্র সৈকত পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান।
বুধবার বিকালে সৈকতের লাবনী পয়েন্টে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন টুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার জোনের এএসপি জিল্লুর রহমান। তিনি বলেন, এ উদ্যোগ সচেতনতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা রাখবে নিঃসন্দেহে। দেশের পর্যটন শিল্পের বিকাশে সৃষ্টি হবে পরিচ্ছন্ন পরিবেশ।’ বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার সিটি কলেজের লেকচারার শামীম রেজা খান সায়েম।
যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা না ফেলে, সমুদ্র সৈকত যাতে দূষণমুক্ত রাখা যায়, সেই উদ্দেশ্যেই এই প্রয়াস৷ পর্যটন কেন্দ্রগুলি পরিষ্কার রাখলে তবেই দূষণমুক্ত বিচে পর্যটকেরা মুক্ত বাতাস অনুভব করতে পারবেন।
কক্সবাজার সদর-রামু স্টুডেন্টস ফোরামের সভাপতি মোঃ শাকিবুল হক বলেন, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত আমাদের দেশের একটি মূল্যবান সম্পদ। এটি পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা আমাদের দায়িত্বের মধ্যেই পড়ে। এখন থেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান এর পাশাপাশি নিয়মিত পর্যটকদের সচেতনতা বাড়াতে কাজ করে যাব।
সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক গাজী নাজমুল হক বলেন, সমুদ্র সৈকত পরিচ্ছন্ন থাকা জরুরি। কিন্তু খাবারের উচ্ছিষ্ট, বোতল, প্লাস্টিক, চিপসের প্যাকেট ইত্যাদি যত্রতত্র ছড়িয়ে থাকে। তা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ব্যাঘাত ঘটায়।তাই সমুদ্র সৈকত পরিচ্ছন্ন রাখতে সকলের এগিয়ে আসা উচিত।
ফোরামের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মারুফ বলেন, সবকিছু ভেস্তে যাবে যদি আমরা আমাদের কক্সবাজারকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না রাখি। ভবিষ্যতেও এই ধরনের কর্মকান্ডে আমাদের ফোরাম কাজ করে যাবে।
উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত কক্সবাজার সদর উপজেলা এবং রামু উপজেলার শিক্ষার্থীদের প্লাটফর্ম এই ফোরাম৷ দীর্ঘ ১০ দিনের ছুটিতে কক্সবাজার বাড়িতে আসা শিক্ষার্থীদের এই ধরনের উদ্যোগ পর্যটক এবং সাধারণ জনগণ এর নজর কেড়েছে। এসময় কক্সবাজার সিটি কলেজ, কক্সবাজার সরকারী কলেজ, চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি, সাদার্ন ইউনিভার্সিটি, কক্সবাজার মডেল হাই স্কুলের শিক্ষার্থীরাও অংশগ্রহণ করে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply