কোটি টাকা চাঁদা দাবি মেয়র মুজিবের

কক্সবাজার জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজারের মেয়র মুজিবুর রহমান।

ডিবিসি নিউজঃ

ফোনে গুলি করে হত্যার হুমকির পর এবার হোটেল ব্যবসায়ীর কাছ থেকে এক কোটি টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে কক্সবাজারের মেয়র মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে।

এতো দিন ভয়ে চুপ থাকলেও, ভূমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত দুর্নীতির অভিযোগে মেয়র, তার ছেলে ও শ্যালকের এ্যাকাউন্ট থেকে সম্প্রতি ৪ কোটি ২০ লাখ টাকা জব্দের পর মুখ খুলতে শুরু করেছেন ভুক্তভোগীরা।

একটি  অডিও রের্কড প্রকাশ পেয়েছে। অডিও রেকর্ডটি কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের। শালিসে বসে জামান সী হাইটস হোটেলের মালিকের কাছে এক কোটি টাকা চাঁদা দাবি করেন তিনি। এর আগে দেলোয়ার নামে এক হোটেল ব্যবসায়ীকে গুলি করার হুমকির ফোনালাপ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

এর আগে গুলি করে হত্যা করার একটি অডিও রের্কড ফাঁস হয়েছিল।

কক্সবাজারের কলাতলী জামান সী হাইটস হোটেলটি পরিচালনার জন্য দেয়া হয় মেয়রের কাছের লোক হিসেবে পরিচিত শাহজাহান আনসারীকে। হোটেল মালিক তখন জানতেন না শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ীদের তালিকায় আনসারীর নাম রয়েছে।

২০১৯ সালে টেকনাফে ১শ ২ জন ইয়াবা ব্যবসায়ীর সাথে সেও আত্মসমর্পণ করে। এরপর থেকে তাকে হোটেল ছেড়ে দিতে বলা হলে মালিকপক্ষের লোকজনকে পিটিয়ে আহত করে তার বাহিনী।

জামান সী হাইটস হোটেলের মালিক ওয়াহিদুজ্জামান বাবু জানান, ‘মেয়র এক কোটি টাকা দাবি করেছে।’

এদিকে অভিযোগ অস্বীকার করে মেয়র জানান ‘তার কণ্ঠ নকল করে অন্য কেউ এই কাজ করতে পারে।’

অভিযোগ রয়েছে কারাগারে বসেই হোটেলটি ব্যবহার করে ইয়াবা ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছে শাহজাহান ও তার ভাই সুফিয়ান আনসারী। এ অবস্থায় চাঁদাবাজ ও ইয়াবা ব্যবসায়ীদের ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন।

সরকারি প্রকল্পের ভূমি অধিগ্রহণে দুর্নীতি, কমিশন বাণিজ্যসহ নানা অভিযোগে সম্প্রতি কক্সবাজারের মেয়র মুজিবুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুর্নীতি দমন কমিশন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply