ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, এসআই লিয়াকত আলীসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামি এসআই লিয়াকত আলীসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে মামলাআবু সালেম মোহাম্মদ নোমান এর আদালতে মামলা দায়ের করেন। মামলার বাদী হলেন, এস এম জসিম উদ্দীন। বাদীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন জুয়েল দাশ। উক্ত মামলায় ১৩ জনকে বিবাদী করা হয়। এর মধ্যে ৯ জন পুলিশ কর্মকর্তা রয়েছেন। ১ নং আসামি করা হয় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলার আসামি বরখাস্ত পুলিশ পরিদর্শক লিয়াকত আলী। তিনি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্র এর ইনচার্জ থাকা অবস্থায় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহাকে গুলি করে হত্যা করার পর বরখাস্ত হয়েছিলেন। অপর বিবাদীরা হলেন, সাবেক সিএমপি ডিবি এস আই সন্তোষ কুমার। পতেঙ্গা থানার সাবেক এস আই বর্তমানে চট্টগ্রামের পিবিআই ইন্সপেক্টর কামরুল।হালিশহর থানাধীন ছোটপুল শান্তিবাগ আবাসিক এলাকার মৃত খলিলুর রহমানের পুত্র এস এম সাহাবুদ্দীন। ডবলমুরিং থানাধীন আগ্রাবাদ তাহের চেম্বার বসুন্ধরা ট্রেডিং এজেন্সি মৃত ধনরঞ্জন পালিত এর পুত্র বিষুপদ পালিত। আকবরশাহ্ থানাধীন উত্তর কাট্টলী নিউ মনছুরাবাদ ৩৪ মাতৃছায়া প্রশান্তি আবাসিক এলাকার মৃত হরিপদ বৈদ্য এর পুত্র কাজল কান্তি বৈদ্য। চান্দগাঁও থানাধীন কালুরঘাট শিল্প এলাকা সিএন্ডবি রোডের মাথা মৃত আব্দুল মান্নান মজুমদার এর পুত্র জিয়াউর রহমান। সদরঘাট থানার সাবেক এস আই বর্তমানে সিলেট পিবিআই ইন্সপেক্টর তালাত মাহমুদ। সদরঘাট থানার সাবেক এবং বর্তমানে খুলশী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রনব চৌধুরী।কুমিল্লা জেলার সাবেক দাউদকান্দি থানা বর্তমানে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মর্জিনা বেগম। কুমিল্লা জেলার সাবেক দাউদকান্দি থানার এস আই নজরুল বর্তমানে সাতকানিয়া থানায়। কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার সাবেক এস আই হান্নান। চট্টগ্রাম গোয়েন্দা বিভাগের সাবেক অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার বাবুল আক্তার। এঁদের মধ্যে থেকে ৭ জনের নামে আদালত মামলা আমলে নিয়ে ডিসি ডিবিকে তদন্তের আদেশ দেন। আমলে নেওয়া বিবাদীদের মধ্যে ৩ জন পুলিশ কর্মকর্ত রয়েছেন। তাঁরা হলেন, বরখাস্ত পুলিশ পরিদর্শক লেয়াকত আলী। কুমিল্লা জেলার সাবেক দাউদকান্দি থানার এস আই নজরুল বর্তমানে সাতকানিয়া থানায়।কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার সাবেক এস আই হান্নান। অপর ৪ আসামি হলেন, এস এম সাহাবুদ্দীন, বিষুপদ পালিত, কাজল কান্তি বৈদ্য ও জিয়াউর রহমান। বাদীর আইনজীবী এডভোকেট জুয়েল দাস দৈনিক সাঙ্গুকে বলেন, আদালত ৭ জনের নামে মামলা গ্রহন করেছেন, বাকী বিবাদীরা তদন্তে জড়িত প্রমান পেলে তাঁদেরকেও মামলায় অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানান আদালত। মামলাটি ডিবি ডিসি তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দিবেন।

দৈনিক সাঙ্গু

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply