গৃহকর্মীকে নির্যাতনঃ শাবি’র সহকারী অধ্যাপক স্বামীসহ আটক

সিলেটে ১২ বছর বয়সী শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যায়ের (শাবিপ্রবি) এক সহকারী অধ্যাপক এবং তার স্বামীকে আটক করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) বিকেলে ৯৯৯ এ কল পেয়ে পুলিশ নগরের আখালিয়ার সুরমা আবাসিক এলাকায় বাসা থেকে তাদের আটক করে। পরে রাতে ওই শিশুর পিতার দায়েরকৃত মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

 অভিযুক্ত সাবিনা ইয়াসমিন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের লোক প্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক পদে কর্মরত। তার স্বামী মাহমুদুল হাসান সোহাগ পেশায় ভাষা প্রশিক্ষক। তারা দু’জনেই শাবিপ্রবির গ্রাজুয়েট।

পুলিশ জানায়, দুই সপ্তাহ ধরে শিশুটিকে নির্যাতন করে আসছিলেন ওই দম্পতি। কয়েকদিন আগে তারা লোহার জিআই পাইপ দিয়ে তাকে প্রহারও করেন। পরে তারা তাকে বাসায় আটকে রেখেছিলেন।

বৃহস্পতিবার ঘরের দরজা খোলা পেয়ে কৌশলে ওই শিশু পালিয়ে পাশের আরেক বাসায় চলে যায়। পরে ওই বাসার গৃহকর্মীর সহযোগিতায় ৯৯৯ এ কল করে নির্যাতনের কথা পুলিশকে জানায়।

পরে কোতোয়ালি মডেল থানার পুলিশ তাদের আটক করে নিয়ে আসে। আর নির্যাতনের শিকার শিশুটিকে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা প্রদান শেষে পুলিশের ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়।

নগর পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মিয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘গৃহকর্মীর অভিভাবকদের খবর দেয়া হলে রাত ১২টার দিকে তার পিতা থানায় এসে মামলা দায়ের করেছেন। পরে আটক দুজনকে ওই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।’ 

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply