গ্রেপ্তারের পর চট্টগ্রামের ‘সন্ত্রাসী’ সরোয়ারের বাড়িতে মিললো একে-২২

[ad_1]

চট্টগ্রাম নগর পুলিশের
সহকারী কমিশনার (বায়েজিদ বোস্তামি জোন) পরিত্রাণ তালুকদার জানান, শনিবার ঢাকার
শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন পুলিশ সরোয়ারকে আটক করে। পরে
চট্টগ্রামের বায়েজিদ থানা পুলিশ সরোয়ারের পরিচয় নিশ্চিত করে রোববার তাকে
চট্টগ্রামে নিয়ে আসে।

এরপর রোববার ভোরে চট্টগ্রামের খন্দকীয়া পাড়ায় সরোয়ারের বাসায় অভিযান চালিয়ে ৩০
রাউন্ড গুলিসহ একটি একে-২২ রাইফেল, চার রাউন্ড গুলিসহ একটি এলজি উদ্ধার করা হয় বলে
বায়েজিদ থানার ওসি প্রিটন সরকার জানান। 

তিনি বলেন,
“পরিচয় নিশ্চিত করে সরোয়ারকে চট্টগ্রামে এনেই তার বাসায় অভিযান চালানো হয়। বাসা
থেকে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় একটি মামলাও হয়েছে।” 

সহকারী কমিশনার
পরিত্রাণ তালুকদার বলেন, “প্রায় তিন বছর কাতারে পালিয়ে ছিলেন সরোয়ার। সেখানে
মারামারির এক ঘটনায় পুলিশ তাকে আটক করে এক মাসের সাজা দেয়। সাজা শেষে সরোয়ারকে
তারা দেশে পাঠিয়ে দিলে ঢাকা বিমানবন্দরে পুলিশ তাকে আটক করে।”

ইসলামী ছাত্রশিবিরের
‘ক্যাডার’ হিসেবে কুখ্যাতি অর্জন করা সরোয়ারের নাম চট্টগ্রাম পুলিশের করা ‘শীর্ষ
সন্ত্রাসীর’ তালিকাতেও রয়েছে। চাঁদাবাজি ও সন্ত্রাসী
কর্মকাণ্ড ছাড়াও বিভিন্ন অভিযোগে বেশ কয়েকটি মামলা রয়েছে সরোয়ারের বিরুদ্ধে।

বিকালে তাকে আদালতে
তোলা হবে জানিয়ে ওসি প্রিটন সরকার বলেন, “দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে
বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হবে।”



[ad_2]

Source link

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply