চকরিয়ায় স্বামীর পরকিয়ায় ৪ সন্তানের জননী ঘরছাড়া, মানবেতর জীবন যাপন

সিবিএল২৫ অপরাধ ডেস্কঃ

স্বামীর প্রতারণার ফাঁদে পড়ে স্ত্রী ও তার সন্তানরা

স্বামীর পরকিয়ায় ৪সন্তানের জননী ঘরছাড়া হয়ে অনাহারে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এমনকি ইতিপূর্বে আদালতে স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলেও যৌতুক লোভী সুচতুর স্বামীর প্রতারণার ফাঁদে পড়ে স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে সংসার করার আশায় আদালত থেকে আপোষে মামলা প্রত্যাহারও করেছিলেন। এরপর ক্ষান্ত থাকেনি প্রতারণার আশ্রয় নেয়া পরকিয়ায় আসক্ত পাষন্ড স্বামী। বর্তমানে একের পর এক ডিভোর্স লেটার (তালাকনামা) পাঠিয়ে স্ত্রীর প্রতি হুমকি ধমকি অব্যাহত রেখেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পূর্ববড়ভেওলা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের আনিচপাড়া ও পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের রশিদারবিল গ্রামে।


অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার পূর্ববড়ভেওলা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের আনিচপাড়া গ্রামের মৃত মো: ইলিয়াছের পুত্র মো: খিজির এর সাথে বিগত ২০০৫সনের ৪ ফেব্রুয়ারী ইসলামী শরীয়াহ মতে ও রেজিষ্ট্রাট কাবিননামা মূলে চকরিয়া পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের রশিদারবিল গ্রামের মোহাম্মদ ইউনুছের মেয়ে নারগিছ আক্তারের বিয়ে হয়। সংসারে ৩পুত্র ও ১ কন্যা সন্তান রয়েছে। কিন্তু স্ত্রীকে প্রতিনিয়ত যৌতুকের জন্য নির্যাতন চালিয়ে আসছিল। এক পর্যায়ে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে চলতি সনের ১৪জানুয়ারী চকরিয়ার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে একটি সিআর মামলা করেন।

ফৌজদারী এ মামলাটি আদালত আমলে নিয়ে কোর্ট ইন্সপেক্টরকে তদন্তের নির্দেশ দেন। উক্ত নির্দেশনার আলোকে উভয় পক্ষের আপোষের ভিত্তিতে সুষ্ঠুভাবে সংসার করার নিমিত্তে ৪সন্তানের দিকে তাকিয়ে মামলা প্রত্যাহার করে নেন। কিন্তু পরবর্তীতে একইভাবে পাষন্ড স্বামী এক প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে পূণরায় পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে স্ত্রী-সন্তানদের প্রতি ফের নির্যাতন ও মারধর শুরু করে। এমনকি ৩মাসের অন্ত:স্বত্ত্বা স্ত্রীর সন্তানও নষ্ট করে দেয় যৌতুক লোভী পরকিয়ায় আসক্ত স্বামী। সর্বশেষ ২৭ জুলাই’২০ইং স্থানীয় চকরিয়া পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জিয়াবুল হকের কাছে অভিযোগ দেন ভূক্তভোগী স্ত্রী নারগিছ আক্তার। তিনি অভিযোগ করে জানান, তার স্বামী পরকিয়ায় আসক্ত হয়ে নতুন আরো আরো ২লাখ টাকা যৌতুকের জন্য তাকে প্রতিনিয়ত নির্যাতন ও মারধর করে আসছে। এমনকি তাকে স্বপরিবারে প্রাণে হত্যার হুমকিও দেয়া হচ্ছে। তিনি সংশ্লিষ্ট প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে আইনী সহায়তা চেয়েছেন। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন স্থানীয় চকরিয়া পৌরসভা ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জিয়াবুল হক।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply