চট্টগ্রাম মহানগরীতে ভাতিজার হত্যাকারী চাচা ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

চট্টগ্রাম মহানগরীঃ

নগরীর ডবলমুরিং থানা এলাকায় তিন বছরের শিশু মেহেরাবকে জবাই করে হত্যার কয়েক ঘণ্টার মাথায় হত্যাকারী জসিম উদ্দিন রাজু (৩২) ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে।  

আজ ৮ জুলাই (বুধবার) ভোরের দিকে ডবলমুরিং থানার পাহাড়তলী ঝর্ণাপাড়ার জোড় ডেবার পূর্ব পাড়ে ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। 

ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, একটি কার্তুজ, ৪ রাউন্ড গুলির খোসা, একটি ধারালো (ফোল্ডিং) ছুরি ও ৮৭৫ পিছ ইয়াবা করেছে পুলিশ।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুদীপ কুমার দাশ গণমাধ্যমকে বলেন, গত মঙ্গলবার রাতে হাজীপাড়ার জলিল ম্যানসন বাড়িতে আসামি জসিম উদ্দিন রাজুর সাথে তার ছোট ভাইয়ের বউ নিলু আকতারের ঝগড়া হয়। এসময় রাজু আপন ভাতিজা নিলুর ছেলে মেহেরাবকে (৩) ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রাত ১২ টার দিকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চমেকের মর্গে পাঠায়। নিহত শিশু মেহেরাব ওই এলাকার জলিল ম্যানসনের মো. রাশেদের ছেলে। রাতেই নিহত শিশুর মা বাদী হয়ে ডবলমুরিং থানায় জেঠা জসিম উদ্দিন রাজুকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ আসামি ধরতে অভিযানে বের হয়।

বন্দুকযুদ্ধে নিহত রাজু ও উদ্ধারকৃত অস্ত্রশস্ত্র

অভিযানের এক পর্যায়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ পাহাড়তলী ঝর্ণাপাড়ার জোড় ডেবার পূর্ব পাড়ে গেলে সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা রাজু ও তার বাহিনী পুলিশের গুলি করে। পুলিশ আত্মরক্ষার্থে পাল্টাগুলি চালালে দুপক্ষের ‘বন্দুকযুদ্ধে’ আসামি রাজু আহত হয় এবং অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় আসামি রাজুকে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বুধবার ভোর ৫টার সময় সেখানে চিকিৎসাধী অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, একটি কার্তুজ, ৪ রাউন্ড গুলির খোসা, একটি ধারালো (ফোল্ডিং) ছুরি ও ৮৭৫ পিস ইয়াবা উদ্ধার করেছে পুলিশ।

খবরঃ পূর্বকোণ

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply