চীনা যুদ্ধযান ঠেকাতে বাংলাদেশ উপকূলে অত্যাধুনিক রাডার বসাচ্ছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

চীনের যুদ্ধজাহাজ, সাবমেরিন ও ড্রাগন বাহিনীর ওপর নজরদারি চালাতে বাংলাদেশ উপকূলে বেশ কয়েকটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বিশেষ রাডার বসাতে যাচ্ছে ভারত সরকার। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

চুক্তি অনুসারে পশ্চিমবঙ্গের সুন্দরবনসহ বাংলাদেশের বিভিন্ন উপকূলে ২০টি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বিশেষ রাডার বসাবে ভারতীয় নৌ-সেনারা। বলা হচ্ছে, এর ফলে চীনের যুদ্ধজাহাজ, সাবমেরিন এবং ড্রাগন বাহিনীর ওপর আরো ভালোভাবে নজরদারি চালাতে পারবে ভারত।

উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন বিশেষ এই রাডারগুলোর নাম দেয়া হয়েছে, ‘কোস্টাল সার্ভেইল্যান্স রাডার সিস্টেম ইন বাংলাদেশ’। বাংলাদেশের উপকূলে বসানোর পর রাডারগুলো দিয়ে শুধু পানির ওপর নয়, গভীর সমুদ্রের তলদেশেও নজরদারি চালাতে পারবে ভারত। রাডারগুলোর মাধ্যমে যে সকল ছবি ধরা পড়বে তা প্রথমে চলে যাবে ভারতীয় নৌ-বাহিনীর সদর দপ্তরের চীনা ডেস্কের সমর বিশেষজ্ঞদের কাছে। তারপর ফুটেজ ও বার্তা বুঝে প্রয়োজনে তা দিল্লির সাউথ ব্লকে জানানো হবে।

এর আগে শ্রীলঙ্কা, মালদ্বীপ, মরিশাস ও সিসিলিতেও একই ধরনের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন রাডার বসিয়েছে ভারতীয় নৌ-বাহিনী। এর ফলে ভারত শুধু তাদের প্রতিরক্ষা মজবুত করেনি বরং পাল্টা চ্যালেঞ্জও ছুড়ে দিয়েছে শত্রু রাষ্ট্রদের প্রতি।

ভারতের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের চট্টগ্রাম ও মোলা বন্দরসহ বিভিন্ন উপকূলে এই রাডার বসানো প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল অনেক আগেই। ২০১৫ সালে দেয়া সে প্রস্তাব তখন বিবেচনা করে দেখার আশ্বাস দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কারণ সে সময় বেজিংকে ক্ষেপাতে চায়নি ঢাকা।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply