জনপ্রিয় তিন নায়িকাকে ব্যাবহার করতেন জি কে শামীম

কেবল পেশিশক্তি আর রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তার করে নয় জি কে শামীম শোবিজের তারকাদেরও ব্যবহার করতেন ব্যবসায়িক হাতিয়ার হিসেবে। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর জিজ্ঞাসাবাদের মুখে জি কে শামীম স্বীকার করেছেন যে, শোবিজের জনপ্রিয়, পরিচিত ৭ তারকার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল।

তাঁদেরকে তিনি ব্যবহার করতেন। বিভিন্ন কাজের জন্য প্রভাবশালী ব্যক্তিদের কাছে এইসমস্ত মডেলদেরকে তিনি পাঠাতেন। মাদক এবং অস্ত্র মামলায় আটক জি কে শামীমকে এখন রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদে জি কে শামীম অনেক চাঞ্চল্যকর তথ্য দিচ্ছেন।

তাঁর যে টেন্ডার সাম্রাজ্য তাঁর উত্থানের আদ্যোপান্ত বর্ণনা দিচ্ছেন। একাধিক গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, রিমান্ডে জি কে শামীম বলেছেন যে কেবল পেশিশক্তি, অস্ত্র এবং রাজনৈতিক প্রভাব নয়, ঘুষ এবং নারীদেরকেও ব্যবহার করতেন তাঁর কাজ পাওয়ার জন্য। যুবলীগের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়েছে যে, জি কে শামীম যুবলীগের নেতা নন।

কিন্তু তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে যুবলীগের নেতা হোন না হোন যুবলীগের পরিচয় যে তিনি ব্যবহার করতেন তা নিয়ে সন্দেহ নেই গোয়েন্দাদের। তাঁর কাছে যুবলীগের পরিচয় ব্যবহার করা কার্ডও পেয়েছে গোয়েন্দা সংস্থাগুলো। জিজ্ঞাসাবাদে জি কে শামীম বলেছেন, সিনেমা জগতের জনপ্রিয় তিন নায়িকা, নাটক এবং মডেলিং জগতে জনপ্রিয় চারজন অভিনেত্রীর জি কে শামীমের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল।

তবে এই সমস্ত মডেল এবং তারকাদের জি কে শামীম ব্যবহার করতেন কাজ পাওয়ার জন্য তাঁর অফিসে বা পাঁচ তারকা হোটেলে তিনি তাঁদেরকে নিয়ে যেতেন, সেখানে সরকারী কর্মকর্তা বা প্রভাবশালীদের সঙ্গে তাদের সখ্যতা তৈরি হত। প্রভাবশালীরা ওইসমস্ত মডেল এবং তারকাদের নিয়ে সময় কাটাতেন। এরফলে তাঁর টেন্ডার পাওয়া বা প্রভাব বিস্তার করা অনেক সহজ হতো।

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে যে, এইসমস্ত শোবিজের তারকা এবং মডেলদের নাম ঠিকানা সবকিছু তাদের হস্তগত হয়েছে। তবে তদন্ত স্বার্থে তারা কারা কারা এই সমস্ত মডেল এবং তারকা ছিল তাদের নাম প্রকাশ করছে না। তবে একাধিক গোয়েন্দা সূত্র বলছে যে, জি কে শামীমের সব বক্তব্যই যে সত্য এমনটি নয়। তারা পরত্যেকটি বক্তব্য পুনঃতদন্ত করবে এবং যাচাই বাছাইয়ের পরই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply