তুরস্কের সাথে সিরীয় বাহিনীর সংঘাত ঠেকাবে রাশিয়া

আন্তর্জাতিক অনলাইন ডেস্ক:

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের অভিযান চলতে থাকার মধ্যেই রাশিয়া বলেছে, তারা তুরস্ক এবং প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সিরীয় বাহিনীর মধ্যে সংঘর্ষ হতে দেবে না।
সিরিয়ায় মস্কোর বিশেষ দূত অ্যালেক্সান্ডার ল্যাভরেনতিয়েভ বলেছেন, “তুরস্কের অভিযান মেনে নেওয়া যায় না… আর তাই আমরা অবশ্যই কোনো সংঘর্ষ ঘটতে দেব না।”
দুপক্ষে কোনোরকম সংঘাত এড়াতে তুরস্ক এবং সিরিয়ার কর্মকর্তারা যোগাযোগ করছেন বলেও জানান ল্যাভরেনতিয়েভ।
রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রণালয় বলেছে, সিরিয়ায় মোতায়েন রুশ বাহিনী সিরীয় এবং তুর্কি বাহিনীর মধ্যকার ‘লাইন অব কনটাক্ট’ পাহারা দিয়ে রেখেছে।
সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে যুক্তরাষ্ট্র সেনা সরিয়ে নেওয়ার পরই সিরিয়ায় কুর্দি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে তুরস্কের অভিযানের পথ সুগম হয়েছে বলে অভিযোগ সমালোচকদের।।
রাশিয়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের গুরুত্বপূর্ণ সামরিক মিত্র।
তুরস্ক নিজের সীমান্ত সংলগ্ন এলাকাগুলো থেকে কুর্দি বাহিনীগুলোকে হটিয়ে দিতে গত সপ্তাহ থেকে সিরিয়ায় উত্তরাঞ্চলে সামরিক অভিযান শুরু করেছে। আঙ্কারা সমর্থিত সিরিয়ার বিদ্রোহী বাহিনীগুলোও তুরস্কের এই অভিযানের অংশ নিচ্ছে।
ওদিকে, সিরিয়ার কুর্দি অধ্যুষিত উত্তরাঞ্চলে তুরস্কের সামরিক অভিযানের মুখে চাপে পড়া কুর্দিরা প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের সরকারের সঙ্গে সমঝোতা করেছে। তুরস্কের অভিযান রুখতে সেখানে সেনাবাহিনী পাঠাতে সম্মত হয়েছে আসাদ সরকার।
তুরস্ক বলছে, তাদের অভিযানের লক্ষ্য হচ্ছে, সিরিয়ার ভেতর একটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ প্রতিষ্ঠা করে সেখানে তুরস্কে থাকা ৩৬ লাখের মতো সিরীয় শরণার্থীকে পুনর্বাসন করা।
বিবিসি জানিয়েছে, আসাদ সরকারের বাহিনী তুর্কি অভিযান রোধে মাঠে নামলেও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান বলেছেন, লক্ষ্য পূরণ না হওয়া পর্যন্ত তার দেশ লড়াই চালিয়ে যাবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply