দিল্লিতে বিজেপির পরাজয়, জয়ের পথে কেজরিওয়

[ad_1]

উত্তেজনাকর প্রচারণার পর শেষ হলো দিল্লি বিধানসভা নির্বাচন। এখন চলেছে বুথ ফেরত জরিপ নিয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে সবগুলো জরিপেই এগিয়ে রয়েছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের নেতৃত্বাধীন আম আদমি পার্টি (আপ)। আর শোচনীয়ভাবে পরাজয় আভাস উঠে আসে বিজেপির জন্য। ৮ ফেব্রয়ারি, শনিবার এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

দেশটির বিভিন্ন ভোট-পরবর্তী সমীক্ষা মতে, দিল্লিতে অরবিন্দ কেজরিওয়াল আবারো ক্ষমতায় ফিরলেও গতবারের তুলনায় অনেকটা কমছে আসন। আর বিজেপি গতবারের তুলনায় বেশি আসন পেলেও পরাজয় নিশ্চিত। ভারতের গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন এমন খবর প্রকাশ করেছে।

টাইমস নাও-আইপিএসওএস’র ভোট পরবর্তী জরিপ মতে, ৭০ আসন বিশিষ্ট দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমি পার্টি পেতে পারে ৪৭টি আসন। বিজেপি জোট পেতে পারে ২৩টি আসন। কংগ্রেস কোনো আসনই পাচ্ছে না।

জন-কি-বাত’র সমীক্ষায় বলা হয়, আম আদমি পার্টি একাই পেতে পারে ৪৮ থেকে ৬১টি আসন। অন্যদিকে বিজেপি জোট পেতে পারে ৯-২১টি আসন। কংগ্রেস পেতে পারে ০ থেকে একটি আসন।

ইন্ডিয়া নিউজ নেশন’র সমীক্ষা জানায়, আম আদমি পার্টি পেতে পারে ৫৫টি আসন। বিজেপি ১৪টি এবং কংগ্রেস একটি আসন পেতে পারে।

নিউজ এক্স-পোলস্টার’র জরিপ বলছে, আপ পেতে পারে ৫০ থেকে ৫৬টি আসন। বিজেপি পেতে পারে ১০ থেকে ১৪টি আসন।

এবিপি নিউজ-সি ভোটারের সমীক্ষায় অবশ্য আম আদমি পার্টির বিরাট জয়েরই ইঙ্গিত দিচ্ছে। তাদের সমীক্ষায় বলা হয়, আম আদমি পার্টি পেতে পারে ৪৯ থেকে ৫৪টি আসন। বিজেপির ঝুলিতে যেতে পারে ৫ থেকে ৯টি আসন। কংগ্রেস পেতে পারে ০ থেকে ৪টি আসন।

প্রসঙ্গত, ৭০ আসন বিশিষ্ট দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে ২০১৫ নির্বাচনে আম আদমি পার্টি একাই ৬৭টি আসন জিতেছিল। বিজেপি জিতেছিল মাত্র ৩টি আসন। কংগ্রেস কোনো আসন জেতেনি। ভোটের আগে জনমত সমীক্ষাতেও দেখানো হয়, আম আদমি পার্টি ষাটের বেশি আসন পেতে পারে।

কিন্তু, ভোট পরবর্তী বুথ ফেরৎ সমীক্ষা অনুসারে দিল্লিতে শেষ মুহূর্তে কিছুটা হলেও শক্তি বাড়াছে বিজেপির। আর এর পিছনে অনেকেই শাহিনবাগের বিক্ষোভকে কারণ হিসেবে দেখছেন। অধিকাংশ নির্বাচন সমীক্ষক বলছেন, এবারে দিল্লিতে স্বভাববিরুদ্ধভাবে মেরুকরণের ভোট হয়েছে। তবে, আসন কমলেও অরবিন্দ কেজরিওয়ালই যে আবারো দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন, তা নিয়ে কারো কোনো সংশয় নেই।

বাংলা/এনএস



[ad_2]

Source link

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply