দৈনিক সাবাহ’র প্রতিবেদনঃ কর্তৃপক্ষ সফল বললেও বাংলাদেশে কত রোহিঙ্গার করোনা তা স্পষ্ট নয়

ঘনবসতিপূর্ণ রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্পগুলোতে দ্রুত করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে এ আতঙ্কের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশের কর্তৃপক্ষ বলছে, রোহিঙ্গাদের মধ্যে করোনাভাইরাসকে ‘সফলভাবে নিয়ন্ত্রণ’ করা গেছে।
বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের ওই ক্যাম্পগুলোতে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা প্রায় ১০ লক্ষ রোহিঙ্গা মুসলিমের বসবাস। সেখানে দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানান, মে মাসে রোহিঙ্গাদের মধ্যে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হবার পর ৭২৪ জনকে পরীক্ষা করা হলে ৫৪ জন করোনা পজিটিভ শনাক্ত হন।
শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মাহবুব আলম তালুকদার বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেন, আমরা সফলভাবে করোনার প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছি।
কিন্তু এটা স্পষ্ট নয়, কেননা অনেক রোহিঙ্গাই হয়তো করোনার পরীক্ষা করাননি এই ভয়ে যে তাহলে তাদের জনবিচ্ছিন্ন এবং বন্যাদুর্গত বঙ্গোপসাগরের দ্বীপে সড়ানো হতে পারে যেখানে আগে থেকেই সমুদ্রে ভেসে আসা অনেক শরণার্থীকে রাখা হয়েছে।
অন্যদিকে ক্যাম্পগুলো যে অঞ্চলে (কক্সবাজার) সেখানে ২৪ লক্ষ মানুষের বাস এবং সেখানে ২,৭৭৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে, ৬০ জন মারা গেছেন’, মাহবুব আলম বলছিলেন।
করোনার পরীক্ষা বাধ্যতামূলক নয় বলে জানা যাচ্ছে না ক্যাম্পগুলোতে সামগ্রিক মৃত্যুহার বেড়েছে কিনা। আবার সেখানে যারা মারা যাচ্ছেন তাদেরও করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে না।

রোহিঙ্গা শরনার্থী শিবির
Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply