পটিয়ায় শশুর বাড়িতে প্রবাসী জামাইকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা

পটিয়া, চট্টগ্রামঃ
পটিয়ায় কুসুমপুরা ইউনিয়নের হরিনখাইনে শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে এসে সাইফুল ইসলাম সুমন (৩৫) নামের এক প্রবাসী ছুরিকাঘাতে নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

গত শুক্রবার গভীর রাতে এ ঘটনা ঘটলেও আজ শনিবার ভোরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই প্রবাসীর মৃত্যু হয়।

নিহতের বড়ভাই ফারুক জানান, তার ভাই ছয় মাস আগে দুবাই থেকে দেশে আসেন। পারিবারিক সমস্যার জেরে তার ভাইয়ের স্ত্রী গত দুই মাস ধরে তার বাবার বাড়িতে ছিলেন। শুক্রবার রাতে তার ছোট ভাই সুমন শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে গেলে তার শ্বশুরবাড়ির লোকজন মিলে তাকে ছুরিকাঘাত করে খুন করেছেন।

পটিয়া থানার ওসি বোরহান উদ্দিন পাঠক ডট নিউজকে বলেন, গত শুক্রবার রাতে সুমন তার শ্বশুরবাড়িতে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। পরে আহত অবস্থায় চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শনিবার ভোরে তার মৃত্যু হলে বিষয়টি আমরা জানতে পারি। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে সুমনকে হত্যার অভিযোগ করা হয়েছে। কিন্তু তার শ্বশুরবাড়ির পক্ষের লোকজনের দাবি স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়ার জেরে আত্মহত্যা করেছেন সুমন।

জানা যায়, পটিয়ার কুসুমপুরা ইউনিয়নের বিনিনীহারা এলাকার আবুল কাসেমের ছেলে প্রবাসী সুমন হরিনখাইন হতে বিয়ে করেন চার বছর আগে। বিয়ের পর সুমন প্রবাসে চলে গেলে সুমনের পরিবারের সঙ্গে তার স্ত্রীর বনিবনা না হওয়ায় নিজের বাবার বাড়িতে থাকতে শুরু করেন। ছয় মাস আগে সুমন দেশে ফিরলেও তার স্ত্রী বাবার বাড়িতেই থেকে আসছিলেন, সুমনও মাঝে মাঝে শ্বশুরবাড়িতে আসা-যাওয়া করছিলেন। শুক্রবার রাতে আবারও শ্বশুরবাড়ি গেলে স্ত্রীর সঙ্গে ঝগড়া হয়। এক পর্যায়ে ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন সুমন। পরে গতকাল ১৮ জুলাই শনিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে ঘটনার তদন্তে পটিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন । নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে গতকাল শনিবার সাড়ে ছয়টার দিকে জানাজা শেষে দাফন করা হয়েছে। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এখনো থানায় কোন অভিযোগ করে নি।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply