পররাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে শতাধিক বন্দীর তালিকা হস্তান্তর, তাদের দেশে ফেরাতে এমপি কমলের প্রচেষ্টা

নীতিশ বড়ুয়া, রামুঃ
কক্সবাজার সদর ও রামু উপজেলার অধিবাসী যারা বিভিন্নসময় অর্থ উপার্জনের লক্ষ্যে ভারত, মায়ানমার, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া পাড়ি দিয়ে বন্দী জীবন-যাপন করছেন তাদের দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ নিয়েছেন কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ সাইমুম সরওয়ার কমল।
এ লক্ষ্যে সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের কাছে শতাধিক বন্দীর একটি তালিকা হস্তান্তর করেছেন। বৃহষ্পতিবার (১৪ নভেম্বর) সকালে মন্ত্রী পরিষদ সচিবালয়ে এ তালিকা হস্তান্তর করেন এমপি কমল।

এমপি কমল জানান, তিনি প্রতি বছর পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে তাঁর সংসদীয় আসন (কক্সবাজার সদর-রামু) এর আওতাধিন এলাকার ভারত, মায়ানমার, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া পাড়ি দিয়ে বন্দী জীবন-যাপন করা শত শত বাসিন্দাদের দেশে ফিরিয়ে আনেন। এ প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে বর্তমানে বিভিন্ন দেশে বন্দী থাকা ব্যক্তিদের তিনি দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্যোগ শুরু করেছেন। তিনি তালিকায় অর্ন্তভূক্ত হননি এমন কোন ব্যক্তি বিদেশের কারাগারে বন্দী থাকলে অতি সত্বর নাম-ঠিকানা সহ যোগাযোগ করার জন্য স্বজনদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন।

সাংসদ কমলের একান্ত সহকারি মিজানুর রহমান জানান, বিগত কয়েক বছরে মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ¦ সাইমুম সরওয়ার কমলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বিদেশে কারাবন্দী এবং বিভিন্ন কারনে মৃত্যুবরণকারি প্রায় ৩ শতাধিক ব্যক্তিকে দেশে ফিরিয়ে এনেছেন। এছাড়া মহৎ এ কাজ বাস্তবায়নে কক্সবাজার সদর এর হোটেল নিদমহল এবং রামু উপজেলার ওসমান ভবনে পৃথক অফিসে কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

সম্প্রতি মালয়েশিয়া কারাগার থেকে মুক্তি পেয়ে দেশে আসা রামু উপজেলা জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়নের নোনাছড়ি এলাকার বাসিন্দা মোহাম্মদ হোছন জানান, ৭ বছর পূর্বে তিনি জীবিকার তাগিদে মালয়েশিয়া যান। সেখানে ভিসা সংক্রান্ত বিষয়ে দালালদের দ্বারা প্রতারিত ও হয়রানির শিকার হয়ে দেশে আসতে পারছিলেন না। তিনি দীর্ঘ সময় অতিবাহিত করলেও তিনি দেশে ফেরার কোন কুল-কিনারা হচ্ছিলো না। সবশেষে সম্প্রতি এমপি কমলের সহায়তায় বিদেশে আটক ব্যক্তিদের ফিরিয়ে আনার বিষয়টি জানার পর তার পরিবারের সদস্যরাও এমপি কমলের সাথে যোগাযোগ করেন। অবেশেষে এমপি কমলের আন্তরিক প্রচেষ্টায় তিনি গত ১০ দিন পূর্বে দেশে ফিরে আসেন। এতে তার পরিবার-পরিজনের মাঝে স্বস্থি ফিরে আসে।

সাধারণ মানুষ এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বলছেন, বিদেশে কারাবন্দী ও হয়রানির শিকার নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে আনতে সাংসদ মহোদয় দীর্ঘদিন যে প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন তা অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply