প্রধানমন্ত্রীর শুদ্ধি অভিযানে ভূমিদস্যু ও দখলবাজদেরও রেহায় নেইঃ কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভূমিদস্যু ও দখলবাজরাও চলমান অভিযান থেকে রেহায় পাবে না। রোববার কক্সবাজার জেলা প্রশাসক কর্যালয়ের শহীদ এটিএম জাফর আলম মিলনায়তনে সুধীবৃন্দ ও সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় কাদের এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘যত বড় নেতা ও প্রভাবশালী হোক না কেন চলমান অভিযান থেকে কেউ বাদ যাবে না। ভূমিদস্যু ও দখলবাজদেরও রেহায় দেয়া হবে না।’

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে কাদের বলেন, তারা নানাভাবে ভালো কথা বলার চেষ্টা করেন। কিন্তু নিজেদের চেহারা আয়নায় দেখেননি। পাঁচবার তারা দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। তাদের এই দুর্নীতির রেকর্ড আগামীতে কেউ ভাঙতে পারবে না।

‘হাওয়া ভবন বিএনপির দুর্নীতির ঘাঁটি ছিল। ছোট নেতা থেকে বড় নেতা সবাই দুর্নীতিগ্রস্থ। কিন্তু তখন তারা দুর্নীতি প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা নেননি। তাদের নিজেদের এত গন্ধ আর তারা ন্যায় নীতির কথা বলেন। এ যেন ভুতের মুখে রাম নাম,’ বলেন সেতুমন্ত্রী কাদের।

বিএনপি নেতাদের পদত্যাগ করা উচিত মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে বিএনপি নেতারা ব্যর্থ। মাঠে তাদের কোনো অবস্থান নেই। তারা ১০ বছরে ১০ মিনিটের জন্যও মাঠে অবস্থান করতে পারেননি। আন্দোলনে তারা ব্যর্থ। তাদের নেত্রী খালেদা জিয়া দীর্ঘ দেড় বছর কারাবন্দি রয়েছেন। কিন্ত নেতা-কর্মীরা তাকে মুক্ত করতে দেড় মিনিটের জন্যও মাঠে নামতে পারেননি। তাদের সবার পদত্যাগ করা উচিত।’

সরকারি আমলাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কাছে ভালো হওয়ার জন্য অনেকেই নিজেদের আওয়ামী লীগ নেতা মনে করবেন। দুর্নীতি না করে নিজেদের কাজ সততার সাথে করলেই এই সরকারের প্রিয় হওয়া যাবে। ‘আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে অনিয়ম, দুর্নীতি সহ্য করা হবে না,’ সতর্ক করেন তিনি।

কক্সবাজার শহরের অবস্থা বর্ণনা করতে গিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এটি একটি ভুতুড়ে শহর। শহরের রাস্তার অবস্থা ভালো না। সন্ধ্যা হলেই অন্ধকার নেমে আসে। শহরে আলোর অবস্থা খুবই অপ্রতুল।

জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন- পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামিম, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, পংকজ নাথ এমপি, সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি, আশেক উল্লাহ রফিক এমপি, জাফর আলম এমপি, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার মাহবুব আলম তালুকদার, পুলিশ সুপার মাসুদ হোসেন প্রমুখ। ইউএনবি।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply