ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে না পারলে কিসের কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার

১.

আপনাকে অবশ্যই ফেসবুক আইডি হ্যাকিং বা ফিশিং সম্পর্কে জানতে হবে। কারও কারও ধারণা, ‘আইটি’র স্টুডেন্ট হিসেবে আপনার এটা প্রাইমারি লেভেলের একটা কাজ। এটা যদি না পারেন, মা–বাপের পয়সা নষ্ট করে পড়াশোনা করার কোনো দরকার নেই আপনার।

২.

আপনাকে কম্পিউটারের অ্যান্টিভাইরাস ইনস্টল করা জানতে হবে এবং একই সঙ্গে কোন অ্যান্টিভাইরাসটা সবচেয়ে ভালো, সে সম্পর্কে বিস্তর জ্ঞান থাকতে হবে।

৩.

ফোনের ব্যাটারিতে চার্জ থাকে না কেন, ফোন হুটহাট হ্যাং করে কেন—এসব ব্যাপারে আপনার জানাশোনা না থাকলে বিপদ।

৪.

সাধারণ একজন মানুষের গার্লফ্রেন্ড বা বয়ফ্রেন্ডের ফেসবুক আইডিতে ঢুকে তার ইনবক্স দেখার মতো অসীম ক্ষমতা আপনার থাকতেই হবে।

ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে না পারলে কিসের কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার

৫.

আপনাকে অবশ্যই টরেন্ট সম্পর্কে বিস্তর জ্ঞান রাখতে হবে এবং ইন্টারনেট ডাউনলোড ম্যানেজারের ক্র্যাক ফাইল আপনার কাছে থাকতে হবে।

৬.

ও হ্যাঁ, ফটোশপ আপনাকে অবশ্যই জানতে হবে। কম্পিউটার নিয়ে পড়েন অথচ ভাই–ব্রাদারের ছবি কম্পিউটারে এডিট করে দিতে পারবেন না, তা কী করে হয়!

৭.

দেখিবামাত্র কম্পিউটারের যেকোনো রোগের নাড়িনক্ষত্র বের করার ক্ষমতা থাকতে হবে আপনার।

৮.

কেউ একজন একটা ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ কম্পিউটার কিনবে। আপনাকে অবশ্যই সেটার বাজারদর সম্পর্কে ধারণা রাখতে হবে। নইলে আপনার কম্পিউটার/সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং পড়া বৃথা!

ফেসবুক আইডি হ্যাক করতে না পারলে কিসের কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার

৯.

পুরোনা কম্পিউটার কেনাবেচা সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে আপনার। কম্পিউটার কেনাবেচা করতে পারেন না, আপনি আবার কিসের ‘কম্পিউটারে পড়ুয়া’ ছাত্র?

১০.

মানুষের বিয়ের ভিডিওতে গান যুক্ত করা জানতে হবে। সেটা না পারলে আপনি মোটেও পড়াশোনা করেন না।

১১.

ই–মেইল আইডি খোলা জানতে হবে, প্রায় সময়ই অনেকে আপনাকে একটা ই–মেইল আইডি খোলার জন্য অনুরোধ করতে পারে।

১২.

অপেক্ষাকৃত বয়সীদের মতে, আপনাকে কোনো কম্পিউটার সেলস অ্যান্ড সার্ভিসিং সেন্টারে চাকরি করতে হবে। কারণ, কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়াররা ভাঙা, নষ্ট কম্পিউটার ঠিক করেন।

এসব জানলে আপনি অত্যন্ত ভালো একজন ছাত্র এবং মা–বাবার মুখ উজ্জ্বল করবেন। এসব যদি না জানেন, আপনি বখে গেছেন। ভার্সিটিতে উঠে আপনি পড়াশোনা ছেড়ে দিয়েছেন…

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply