বঙ্গবন্ধুকে কটুক্তি এবং সাধারণ শিক্ষার্থীকে হামলার প্রতিবাদে রামু কলেজ ছাত্রলীগের প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল

একরামুল হাসান ইয়াছিন

রামু সরকারী কলেজে রোজ মঙ্গলবার দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটে কলেজ ছাত্রলীগ এক প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ মিছিল আয়োজন করেন। গতকাল সোমবার দুপুর ১২ টা ৩০ মিনিটে ছাত্রদল নেতা আনিসুল মোস্তফা সিকদার এবং ওসমান গণির নেতৃত্বে কিছু অছাত্র, মাদকাসক্ত গুন্ডাপান্ডা বঙ্গবন্ধুকে কটুক্তি করে এবং সাধারণ শিক্ষার্থীর উপর হামলা চালিয়ে ৩ জন শিক্ষার্থীকে গুরুতর আহত করার প্রতিবাদ এবং প্রতিরোধের দাবীতে এ মিছিল করেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রামু সরকারী কলেজ শাখা। গতকাল রোজ সোমবার দুপুর ২টায় রামু কলেজ শিক্ষার্থীরাও এক বিক্ষোভ মিছিল সম্পন্ন করেন।

রামু সরকারী কলেজ ছাত্রলীগ কলেজ ক্যাম্পাসে মিছিলের অগ্নিমাখা স্লোগান ধরতে ধরতে ছাত্রলীগ নেতারা বঙ্গবন্ধুকে কটুক্তি এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের হামলার প্রতিবাদে নানা দাবী তুলে ধরেন। বক্তব্যে ছাত্রলীগ নেতা এনামুল হোসাইন রিয়াদ বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটুক্তি আর আমার সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলা কখনো মেনে নেয়ার মত নই। সেই সাথে ছাত্রদলের কতিপয় সন্ত্রাসীদের নেতৃত্বে গড়া সন্ত্রাস বাহিনীকে রামু সরকারী কলেজ থেকে প্রতিহত করা সহ তিন ছাত্রদল নেতা
আনিসুল মোস্তফা সিকদার, ওসমান গণি এবং আব্দুর রহমান বোখারীকে অত্র কলেজ থেকে বহিষ্কার করতে হবে।প্রশাসন যতদিন চুপ থাকবে, ততদিন আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। ছাত্রলীগ নেতা আশেক মোহাম্মদ রায়হান বক্তব্যে বলেন, কলেজে সুন্দর পরিবেশ গড়ে তুলতে সাধারণ ছাত্র ছাত্রীদের পাশে থাকবো।ছাত্রলীগ নেতা রায়হান উদ্দীন রানা বলেন,বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি সহ্য করার মতো না।তার প্রাশ্চিত্য প্রতিটি নিশ্বাসে তাদের ভোগ করতে হবে। বঙ্গবন্ধুকে কটুক্তি করা কেউ এই কলেজের ছাত্র হওয়ার যোগ্যতা রাখেনা।
ছাত্রলীগ নেতা মোহাম্মদ জাহেদ বলেন,রামু কলেজ ছাত্রদলের নেতা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটুক্তি করায় এবং সাধারণ শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদ আমি কলেজ প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানাচ্ছি, এ ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে মূল্যায়ন করা হোক। আর আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই।
এতে আরো উপস্থিতি ছিলেন রামু সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল বিন আশিক,বাদশাহ খান,মোহাম্মদ জাহেদ,নূর আফতাব মাসুদ,করিম উল্লাহ,সরওয়ার কামাল,নুরুল কবির আশিক,বঙ্গবন্ধু একতা পরিষদ নেতা আসিবুল হাসান,ইন্তিকার কামাল সহ শতাধিক ছাত্রলীগ নেতৃবৃন্দ।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply