বাংলাদেশে করোনা টেস্ট হঠাৎ করেই কমে গেছে!

হঠাৎ করেই বাংলাদেশে করোনা টেস্ট কমে গেছে। সর্বোচ্চ সাড়ে ১৮ হাজার থেকে কমে ১৩ হাজার ৯৮৮ জনে পৌঁছেছে। কিন্তু কেন? নানা প্রশ্ন বিশেষজ্ঞ মহলে। সরকারি ফি নির্ধারণই কি প্রধান কারন? কেউ কেউ বলছেন, ফি নির্ধারণ করার কারণে দরিদ্র জনগোষ্ঠী টেস্ট করাতে আসছে কম। আবার অনেকে বলছেন, কিটের সংকট থাকায় টেস্টের উপর এর প্রভাব পড়েছে। গত ২৯ জুন থেকে সর্বনিম্ন ২০০ টাকা ফি নির্ধারণ করা হয়। সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা। প্রায় সাত লাখ রোগী বিনা পয়সায় এই টেস্টের সুবিধা পেয়েছেন। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. আব্দুন নূর তুষার মনে করেন, টেস্ট কমে গেলে রোগীও কমে যায়। এটাও নীতি হতে পারে। ভয়েস অফ আমেরিকাকে তিনি বলেন, টেস্ট কমে যাওয়ার পেছনে অন্তত দুটি কারণ রয়েছে।

সর্বশেষ স্বাস্থ্য বুলেটিনে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৭৩৮ জন শনাক্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৫৫ জন। সবমিলিয়ে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৫২ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৬২ হাজার ৪১৭ জন। সুস্থ হয়েছেন ৭২ হাজার ৬২৫ জন।

ওদিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে প্রতিদিনই মৃত্যু হানা দেয়। গত ২ মে এই হাসপাতালে করোনা ইউনিট চালু হয়। এ পর্যন্ত এই ইউনিটে ৬১ দিনে ৮৫৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে করোনায় মারা গেছেন ১৯০ জন। অন্যদের মৃত্যু হয়েছে করোনা উপসর্গ নিয়ে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply