বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর জন্য আনা হচ্ছে এক্স-১৮ ট্যাংক বোট।

চিটাগং টাইমস নিউজ:

বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডকে সুইডেনের সিবি৯০ ডিজাইনের উপর ভিত্তি করে তৈরি স্টিনগ্রে-ক্লাস কমব্যাট পেট্রল বোট সরবরাহের জন্য নর্থ সি বোটস/পিটি লুনডিন এবং বাংলাদেশ নৌবাহিনরি ডকইয়ার্ড এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কস ২০১৪ সাল থেকে পরস্পরকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে বহু ধরনের নতুন নৌযান সরবরাহের জন্য যৌথভাবে কাজ করছে ইন্দোনেশিয়া ও বাংলাদেশের দুটি অভিজ্ঞ জাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। এসব নৌযান শুধু সেনা পরিবহনই নয়, নদী অগ্রাহ্য করা, নদী পারাপার ও উপকূলীয় প্রতিরক্ষা মিশনে এম্ফিবিয়াস ফোর্সের জন্য সাপোর্ট প্লাটফর্ম হিসেবেও কাজ করবে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর রিভারাইন ইঞ্জিনিয়ার ফোর্সকে অত্যন্ত দক্ষ একটি বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলা হচ্ছে; যার শত শত বিভিন্ন ধরনের কমব্যাট বোট, এম্ফিবিয়াস ভেসেল, ড্রেজার ও অন্যান্য ধরনের সহায়ক নৌযান থাকবে।

‘এক্স১৮ ট্যাংক বোটে’র ডিজাইন করেছে পিটি লুনডিন, যা পুরোপুরি দুটি সশস্ত্র পদাতিক সেকশন পরিবহনে সক্ষম হবে। পাশাপাশি এটি উপকূলভিত্তিক প্রতিরোধের বিরুদ্ধে সেনা অবতরনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বাড়তি সহায়তা দেবে।

এতে রয়েছে জার্মানির তৈরি অত্যন্ত শক্তিশালী এমএএন ১,২০০ হর্স পাওয়ারের ডিজেল ইঞ্জিন এবং এমজেপি৪৫০ ওয়াটার জেট সিস্টেম। টুইন হাল ক্যাটামেরন কনফিগারেশনের কারণে বোটটি সহজেই পানির উপর ভেসে থাকবে এবং ড্রাফট কম হওয়ায় এটি সহজে এমন সব জায়গায় যেতে সক্ষম যেখানে বড় যুদ্ধ জাহাজের পক্ষে যাওয়া সম্ভব নয়।

এক্স১৮ যেমন সেনাবাহিনীর রিভারাইন ইঞ্জিনিয়ান কনটিনজেন্টের কাজে লাগবে তেমনি গতি ও মেনুভারেবিলিটির প্রয়োজন এমন কাজে স্পেশাল ফোর্সের অপারেশনে ব্যবহার করা যাবে। বোর্ডিং ও সিল টিম ইনসারসনের জন্য এক্স১৮ ট্যাংক বোটকে আরআইবি সজ্জিত করা হয়েছে।

এতে থাকছে ১০৫ এমএম সিএমআই ককরেইল হাই-প্রেসার গান, যা এডভান্স বাসল-মাউন্ডেড অটোলোডারের সঙ্গে যুক্ত সিটি-সিভি ১০৫এইচপি টারেটের উপর স্থাপিত। দুইজন ক্রু টারেট অপারেট করবে এবং এটি দূরপাল্লার ফ্লারিক ১০৫ গান-লঞ্চড এন্টি-ট্যাংক গাইডেড মিসাইল (জিএলএটিজিএম) এবং ন্যাটো-মানের ১০৫ এমএম ট্যাংক মিউনিশন নিক্ষেপ করতে পারবে। এই গান সিস্টেমের এলিভেটেড সক্ষমতা ৪২ ডিগ্রির বেশি। ফলে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ মোডে এটি থেকে সর্বোচ্চ ফায়ারপাওয়ার দিতে পারবে। এটি সর্বোচ্চ ১০ কিলোমিটার এবং হেভি আর্মার ঘায়েল করতে ৫ কিলোমিটার দূরে জিএলএটিজিএম নিক্ষেপ করতে পারবে।

৭.৬২-৩০ এমএম জিপিএমজি/ক্যানন-এ বফোর্সের এলইএমইউআর রিমোট উইপন সিস্টেম সংযুক্ত করে এক্স১৮-কে আরো শক্তিশালী করা যাবে।

এক্স১৮ ট্যাংকবোটে রয়েছে ভিএইচএফ রেডিও, এসএসবি রেডিও এবং ডাটালিংক, যা তাৎক্ষণিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ও সমন্বিত পরিকল্পনা রিলে করতে পারবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply