বান্দরবানে আওয়ামী লীগ কর্মীকে গুলি করে হত্যা

বান্দরবান সদরে এক পল্লী চিকিৎসককে অপহরণের পর গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

সোমবার (১৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সদর উপজেলার বাকিছড়ার কামাল মেম্বারের ব্রিকফিল্ড এলাকা থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহত পল্লী চিকিৎসকের নাম অংকথোয়াই (উগ্য) মারমা (৫০)। তিনি মৃত বইতামং মারমার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সদর উপজেলার ক্যায়ামলংপাড়া এলাকা থেকে রোববার রাতে অস্ত্রের মুখে পল্লী চিকিৎসক ও স্থানীয় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সদস্য অংকথোয়াই (উগ্য) মারমাকে নিজ বাড়ি থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা।

এর পর সস্ত্রাসীরা তাকে গুলি করে হত্যা করে মরদেহ ব্রিকফিল্ড এলাকায় ফেলে যায়। খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে যান।

বান্দরবান সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম জাহাঙ্গীর জানান, অং ক্য থোয়াই মার্মা আওয়ামী লীগের একনিষ্ঠ কর্মী ছিলেন। পেশায় একজন পল্লী চিকিৎসক।

তিনি বলেন, রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাকে নিজ দোকান থেকে অস্ত্রের মুখে পোশাক পরিহিত কিছু সন্ত্রাসী একটি গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।

এ সময় সন্ত্রাসীরা ওই এলাকাটি আগে থেকেই চারপাশ থেকে ঘিরে রাখে। ভয়ে স্থানীয়রা কেউ সন্ত্রাসীদের বাধা দিতে পারেনি বলে জানান উপজেলা চেয়ারম্যান।

পুলিশ জানায়, সোমবার সকালে বাকীছড়ার ক্যংবা পাড়ার পরিত্যক্ত ব্রিক ফিল্ডের পাশে গোয়াল ঘরে একটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের পরিচয় শনাক্ত করে প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে বান্দরবান সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. শহিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, অপহরণের পর থেকে আমরা উদ্ধার তৎপরতা চালালে সন্ত্রাসীরা রাতের কোনো একসময় তাকে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply