বিদায়ী এসপি মাসুদকে সংবর্ধনা দেয়নি,সফলও বলেন নি কক্সবাজারের মুক্তিযোদ্ধারা

মেজর (অবঃ) সিনহা মোঃ রাশেদ খান হত্যাকাণ্ডসহ নানান কর্মকাণ্ডে বিতর্কিত কক্সবাজার জেলার বিদায়ী পুলিশ সুপার এসপি মাসুদ হোসেনকে সংবর্ধনা দেয়নি, সফলও বলেনি বলে জানিয়েছেন, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী।

গত ২১সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের সফল এসপি মাসুদ হোসেনকে জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সংবর্ধনা শিরোনামে বিভিন্ন অনলাইন পোর্টালে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

সেখানে প্রতিবেদক লিখেছেন, কক্সবাজার জেলার সফল পুলিশ সুপার জনাব এবিএম মাসুদ হোসেন বিপিএম(বার) মহোদয় বিভাগীয় শহর রাজশাহী জেলাতে পুলিশ সুপার হিসেবে পদায়ন হওয়ায় আজ রবিবার সন্ধ্যায় জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদে বিদায়ী চা চক্রের আপ্যায়ন ও জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের পক্ষ হতে উপহার প্রদান করা হয়।

বিতর্কিত এসপি মাসুদকে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেয়ার খবরে অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে
ব্যাপক প্রতিক্রিয়া জানান।

বিশিষ্টজনদের অভিমত, পুলিশের গুলিতে নিহত (অবঃ) মেজর সিনহা একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান।জেলার মুক্তিযোদ্ধাদের সবার আগে সিনহা হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি কারা উচিত ছিল।কিন্তু দুঃখজনক হলেও তা হয়নি।বরং উল্টো মুক্তিযোদ্ধারা প্রথমে এসপি মাসুদকে প্রত্যাহারের দাবী থেকে সরে আসতে, অবসর প্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তাদের সংগঠন রাওয়াকে
অনুরোধ জানান।
সর্বশেষ জেলা মুক্তিযোদ্ধা কর্তৃক এসপিকে বিদায় সংবর্ধনা দেয়ার খবর আসে অনলাইন পোর্টালে এবং ফেসবুকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মুক্তিযোদ্ধা ও ক্রীড়া সংগঠক মোহাম্মদ আলী বলেন,
কক্সবাজারের বিদায়ী এসপি মাসুদকে কোন সংবর্ধনা দেননি মুক্তিযোদ্ধারা।তাকে সফল বলে কোন মুক্তিযোদ্ধা বক্তব্য দেয়নি।গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের দায়ভার মুক্তিযোদ্ধা নেবে না।

তিনি বলেন,এসপি মাসুদ বিদায় বেলায় মুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে দেখা করতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কক্সবাজার ইউনিট এর অফিসে ছিলেন। সেখানে বসে চা চক্র হয়েছে মাত্র।
প্রসঙ্গতঃ গত ১৬সেপ্টেম্বর
রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপসচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে
কক্সবাজার পুলিশ সুপার মাসুদ হোসেনকে রাজশাহী জেলার এসপি হিসেবে এবং ঝিনাইদহের এসপি হাসানুজ্জামানকে কক্সবাজারে এসপি হিসেবে বদলী করা হয়েছে। গতকাল বুধবার কক্সবাজারে এসপি হিসবে যোগদান করেছেন হাসানুজ্জামান।

  • সমুদ্রকন্ঠ সংবাদ
Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply