বেঙ্গালুরু জঙ্গল থেকে প্রেমিক-প্রেমিকার পচাগলা লাশ উদ্ধার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

একমাস ধরে লাগাতার তাঁদের খোঁজ করে চলেছিল হেব্বাগোদি পুলিশ। শেষমেশ গত শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) বিকেলে দুই প্রেমিক-প্রেমিকার পচাগলা লাশ উদ্ধার করল পুলিশ।

বেঙ্গালুরুর একটি সফ্টওয়্যার ফার্মে চাকরি করতেন ওই দুই টেকি। পুলিশ সূত্রে খবর, শ্রীলক্ষ্মীর বয়স ২১ এবং তাঁর প্রেমিক অভিজিত মোহন ২৫ বছর বয়সী। বেঙ্গালুরু থেকে কিছুটা দূরে ফাঁকা একটি জায়গায় গাছের ডালে গলায় দড়ি দিয়েছিলেন তাঁরা বলে জানানো হয়েছে পুলিশের তরফে। এমনকী সূত্রের এ-ও দাবি যে, এমন একটা জায়গায় ওঁরা আত্মহত্যা করেছেন যে, কেউই কোনও খোঁজখবর পায়নি।

এক সিনিয়র পুলিশকর্মী জানিয়েছএন, ১১ অক্টোবর আত্মহত্যা করেন ওঁরা। প্রতিদিনের মতোই অফিস আসে। আর ওই পিক অফিস আওয়ারেই বেরিয়ে যআয় কার্যক্ষেত্র থেকে। হুট করেই ফোন আনরিচেবল হয়ে যায় তাঁদের। আর তারপরই চিন্তিত পরিবারের মানুষজন পারাপ্পানা অগ্রহারা থানায় মিসিং ডায়েরি করেন।

প্রেমিক এবং প্রেমিকা দুজনেরই বাড়ি কেরালার এরনাকুলামে। ১৪ অক্টোবর মেয়েটির পরিবার থানায় মিসিং ডায়েরি করেছিল বলে সূত্রের খবর। চিন্তালা মাদিওয়ালার ঘন জঙ্গলে আত্মহত্যা করেন শ্রীলক্ষ্মী এবং অভিজিত মোহান।

দীর্ঘদিন ধরে ওই প্রেমিক-প্রেমিকার দেহ ওইরকম অবস্থায় ঝুলতে থাকার কারণে পচেগলে যায় তাঁদের দেহ। এমনকী প্রেমিক অভিজিত মোহান দেহ থেকে আলাদা হয়ে যায় মাথা। তাঁর দেহ থেকে কিছুটা দূরেই উদ্ধার করা হয় তাঁর মাথা।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply