মাদকাসক্ত সিএনজি চালকের কারণে মহেশখালীতে এক মাদ্রাসা ছাত্রীর স্পট ডেথ

সিবিএল২৪ প্রতিনিধিঃ

কিংবদন্তি দ্বীপ মহেশখালী উপজেলার কালারমারছড়া ইউনিয়নের মাইজপাড়া দারুল কোরান মাদ্রাসার সামনে ১১ই মার্চ (বৃহস্পতিবার) সকাল ৯ টার দিকে এই মারাত্বক দুর্ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিহত জুই মনি (৬) ও আহত ইভামণি (৭) দুজনে সকাল ৯ টার দিকে মাইজপাড়া মাদ্রাসায় যাচ্ছিলো। এ সময় বেপরোয়া একটি সিএনজি চালিয়াতলী থেকে কালামারছড়া যাওয়ার সময় হঠাৎ তাদের ধাক্কা দেয়। ওই সময় একই এলাকার মুহিব উল্লাহর মেয়ে ও মাইজপাড়া মাদ্রাসার নুরানী বিভাগের ছাত্রী জুই ঘটনাস্থলে মারা যায় ও ওসমানের মেয়ে ইভামণিও মারাত্বক আহত হলে পরে তাকে চকোরিয়া জমজম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
উক্ত সিএনজিতে বসা মধ্যবয়স্ক এক যাত্রী জানান, ঘাতক সিএনজির ড্রাইভার মান্নান ঘুমের নেশায় গাড়ি চালানোর ফলে জুই যখন গাড়ির নীচে পড়ে যায় তখন ড্রাইভার গাড়ি না থামিয়ে চালিয়ে পালাতে চাইলে স্থানীয় উপস্থিত জনতা ড্রাইভার ও গাড়ি আটক করে। এর পর পরেই উপস্থিত উত্তেজিত জনতা প্রায় ৩ ঘন্টা এর অধিক রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে চলাচল বন্ধ রাখলে পরে ‘মহেশখালী থানা পুলিশ এর সহযোগিতায় ব্যারিকেড খুলে দিলে যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক হয়।
স্থানীয়দের অভিযোগ, অদক্ষ ও মাদকাসক্ত সিএনজি চালক এবং সড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে কোন স্পীডব্রেকার না থাকায় মহেশখালীতে এমন দূর্ঘটনা প্রতিনিয়ত হচ্ছে। একই দুর্ঘটনাস্থলে এর আগেও একই এলাকার ডাম্পারের আঘাতে বাদশা ও তার নাতি, ট্রাকের ধাক্কায় জহিরের মেয়ে, শুক্কুরের মেয়ে মারা যায় ও অনেকেই আহত হয়।

মহেশখালী অফিসার ইনচার্জ আবদুল হাই জানান, সিএনজি চালককে থানার হেফাজতে রাখা হয়েছে, লিখিত অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং দুর্ঘটনাস্থলে একটি স্পীড ব্রেকার স্থাপনের ব্যাপারে দ্রুত উদ্যোগ নেওয়া হবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply