মানসিক ও শারিরীক প্রতিবন্ধী ধর্ষণ মামলার আসামী শাহিনুর এখন ভুয়া সাংবাদিক; দিলেন হত্যা ও দেখে নেয়ার হুমকি

পআলী হোসেন রাজু,যশোর-

২০১৪ সালে যশোর সদর উপজেলার হৈবতপুর গ্রামের একটি বাজারে রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো একজন মানসিক ভারসাম্যহীন ও শারিরীক প্রতিবন্ধী নারীকে রাতে একা পেয়ে বাজারের পাশের এক ঝোপে নিয়ে ধর্ষণ করে শাহিনুর ইসলাম শাহিন নামে এক যুবক। মানসিক ভারসাম্যহীন ঐ নারীর আর্তচিৎকারে এগিয়ে আসেন এলাকার লোকজন এবং হাতে নাতে ধরে ফেলেন ধর্ষক শাহিনুর কে। এরপর ভুক্তভোগী ধর্ষণের শিকার ঐ অসহায় নারীকে নিজটস্থ হাসপাতালে পাঠিয়ে ধর্ষক শাহিনুর কে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেন গ্রামবাসী৷ এ ঘটনায় হওয়া মামলায় দীর্ঘদিন কারাবাস করেন ধর্ষক শাহিনুর। কিন্ত জেল থেকে ছাড়া পেয়ে নিজের অপকর্মের ইতিহাস ঢাকতে নিজেকে জবস টিভি নামে ভুয়া এক টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিক পরিচয় দিতে থাকেন ধর্ষক শাহিনুর। এমনকি সর্বশেষ অংশ নেন ইউপি মেম্বার পদের নির্বাচনে। কিন্ত তার ধর্ষক পরিচয় এলাকায় চর্চিত থাকায় মাত্র ২ ভোট পান তিনি৷ এমনকি নিজের পরিবারেরও একটি ভোট পান নি তিনি। একটি নির্ভরযোগ্য সূত্রে এমন তথ্য নিশ্চিত হয়ে এ বিষয়ে এ প্রতিবেদক প্রশ্ন করে শাহিনুরকে- এতে রেগে এ প্রতিবেদককে হুমকি দিতে থাকেন শাহিনুর, এমনকি এক পর্যায়ে তিনি ধর্ষণের স্বীকারোক্তি দিয়ে এ প্রতিবেদককে বলেন “ঐ পাগলী কি তোর মা হয়” এমনকি এ প্রতিবেদককে হত্যা ও দেখে নেয়ার হুমকিও দেন মানসিক ভারসাম্যহীন অসহায় নারীকে ধর্ষণের অভিযুক্ত শাহিনূর। এ ব্যাপারে শাহিনুরের দেয়া হুমকির প্রমাণ এ প্রতিবেদকের কাছে রয়েছে।

Leave a Reply