মালয়েশিয়া পাচারকালে টেকনাফে নারীসহ ১১ রোহিঙ্গা উদ্ধার

তারেকুর রহমান, টেকনাফ:

কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে অবৈধভাবে সাগর পথে মালয়েশিয়া যাবার প্রস্তুতিকালে চার নারীসহ ১১ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে টেকনাফ মডেল থানার পুলিশ।

টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. আনোয়ার হোসেন জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া এলাকা দিয়ে কিছু রোহিঙ্গা সাগরপথে মালয়েশিয়া যাবার উদ্দেশ্যে জড়ো হওয়ার খবর পেয়ে পুলিশের একটি দল সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় ৪ নারীসহ ১১ রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। তারা মানব পাচার চক্রের খপ্পরে পড়ে অবৈধভাবে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া যাবার চেষ্টা করছিল।

আটককৃতরা হলো- উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রাফিউল কাদের, ইলিয়াস রিয়াজ, মো. আইয়ুব, আমির হাকিম, মো. ইলিয়াস, ইব্রাহিম, জানে আলম, আরেছা বিবি, তসলিমা, হারিদুর ইয়াসমিনা ও জাহেরা।

ওই পুলিশ কর্মকর্তা আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের টার্গেট করে পাচারকারী চক্রের বেশকটি সিন্ডিকেট ইতোমধ্যে সক্রিয় হয়ে উঠেছে। তাদের চিহ্নিত করে ধরার চেষ্টা চলছে। আটক রোহিঙ্গাদের ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

আটক তসলিমা জানান, আমাদের কিছু স্বজন মালয়েশিয়া আছেন। মোবাইলে এদের একজনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। মালয়েশিয়া পৌঁছাতে পারলে সে আমাকে বিয়ে করার কথা দিয়েছে। তাই অন্যদের সঙ্গে আমিও মালয়েশিয়া যাবার প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। কিন্তু স্থানীয় লোকজন আমাদেরকে আটক করে প্রশাসনের হাতে তুলে দেয়।

বর্তমানে কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফের ৩২টি আশ্রয় শিবিরে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গার অবস্থান করছে। তাদের পুঁজি করে সাগরপথে মালয়েশিয়ায় পাচারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বেশকটি চক্র। আর দালালের খপ্পরে পড়ে রোহিঙ্গারা মালয়েশিয়া পাড়ি দিতে ক্যাম্প থেকে বের হয়ে বিপদে পড়ছেন।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রবিউল হাসান বলেন, রোহিঙ্গা শিবিরে আবারো দালাল চক্র সক্রিয় হওয়ার চেষ্টা করছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে নারীদের প্রলোভন দেখিয়ে সমুদ্রপথে মালয়েশিয়া পাচারের চেষ্টা করছে তারা। আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যরা ওই চক্রকে গ্রেফতার ও প্রতিহত করার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply