মায়ের পর চিকিৎসক মেয়ের আত্মহত্যা, ট্রেনের নিচে বাবার ঝাঁপ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

কুয়ায় ঝাঁপ দিয়ে ছয় মাস আগে আত্মহত্যা করেছিলেন মা। মায়ের আত্মহত্যা নিয়ে বাবার সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া করতো চিকিৎসক মেয়ে।

এরই জেরে গত বুধবার সন্ধ্যায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মেয়ে দেবাদৃতা সাহা (২৫)। এই শোকে বাবাও ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন।

আত্মঘাতী ওই নারী চিকিৎসক ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক ছিলেন। তার বাবা দিলীপ সাহা বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মকর্তা ছিলেন।

মায়ের মৃত্যুর পর বাবা-মেয়ে বেলঘরিয়ার যতীন দাস নগরের বাড়িতে বসবাস শুরু করেন। বুধবার সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে কেষ্টপুরের ফ্ল্যাটে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেন দেবাদৃতা।

খবর পেয়ে দরজা ভেঙে দেবাদৃতার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় কাঁদতে কাঁদতে ঘটনাস্থল থেকে বেরিয়ে যান বাবা। ঘণ্টাখানেক পরে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে তিনিও আত্মহত্যা করেন।

দিলীপের ভাই প্রদীপ জানান, মায়ের মৃত্যু নিয়ে বাবা-মেয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব ছিল। আগের দিন কথা কাটাকাটিও হয়েছিল। দেবাদৃতা ও তার মা মানসিক অবসাদগ্রস্ত ছিলেন।


Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply