যুক্তরাষ্ট্রে শক্তিশালী ভূমিকম্প, সুনামির আশঙ্কা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

শক্তিশালী মাপের ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা উপকুলে। যার মাত্রা ছিল রিখটার স্কেলে ৭ দশমিক ৮। এর ফলে উপকূলীয় এলাকার আশে পাশে ভয়াবহ সুনামি আঘাত হানতে পারে বলে আশঙ্কা করছে দেশটির আবহাওয়া কর্তৃপক্ষ। সেই সঙ্গে আশপাশের উপকূলীয় এলাকায় ভয়াবহ সুনামির সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস) জানিয়েছে, বুধবার (স্থানীয় সময় মধ্যরাতে আঘাত হানে ৭.৮ মাত্রার এ ভূমিকম্প। এ কম্পনের মূল কেন্দ্র ছিল আলাস্কার পেরিভাইল থেকে ৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে। যার গভীরতা ছিল ভূপৃষ্ঠ থেকে অন্তত ১০ কিলোমিটার গভীরে। চলতি বছরে রিখটার স্কেলের পরিমাপে এটি ছিল সবচেয়ে শক্তিশালী ভূমিকম্প।

ভূমিকম্পের ফলে ভয়াবহ সুনামি হতে পারে জানিয়ে এক সতর্কবার্তায় দেশটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ভূমিকম্পের কেন্দ্রের ৩০০ কিলোমিটারের মধ্যে থাকা উপকূলে ভয়াবহ সুনামি আঘাত হানতে পারে।

ভূমিকম্পের পর প্রশান্ত মহাসাগরীয় সুনামি সতর্ক কেন্দ্র থেকে পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ভূমিকম্পটির মাত্রায় মনে হচ্ছে এর এপিসেন্টারের ৩০০ কিলোমিটারের মধ্যে উপকূলে সুনামির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে উত্তর আমেরিকা অঞ্চলে প্রশান্ত মহাসাগরে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা উপকূল এলাকায়ও সুনামির বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

এএফপির খবরে বলা হয়, ভূমিকম্পটি কয়েক শত মাইল দূর থেকেও টের পাওয়া গেছে। তবে কোনো ক্ষয়ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

ভূমিকম্পের এপিসেন্টারের ৪০০ কিলোমিটার দূরের হোমার নামে এক বাসিন্দা বলেন, বিছানা ও জানালের পর্দা অনেকক্ষণ ধরেই দুলছিল। মনে হয়েছে, অনেক লম্বা ঝাঁকুনি।

ভূ-গঠনগত দিক থেকে ১৮৬৭ সালে রুশ প্রজাতন্ত্র থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কিনে নেওয়া আলাস্কার অবস্থান ভূমিকম্প প্রবণ অঞ্চল ‘প্যাসিফিক রিং অব ফায়ার’ এলাকায়। এই অঞ্চলে ১৯৬৪ সালে ৯.২ মাত্রার ভয়াবহ এক ভূমিকম্প হয়েছিল, যা এখন পর্যন্ত রেকর্ড মাত্রার। এর ফলে সৃষ্ট সুনামিতে ২৫০ জনের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। এনডিটিভি।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply