যে গ্রামে এখনও পূজিত হন হিটলার

বিচিত্র সংবাদঃ

দক্ষিণ-পশ্চিম জার্মানির এক প্রত্যন্ত গ্রাম হার্কহিম আম বার্গ। সেখানের প্রাচীন সেন্ট জেমস প্রোটেস্ট্যান্ট চার্চে আজও হিটলারের শুভকামনায় ঘন্টা বাজানো হয়। সেই ঘন্টায় উপরের দিকে চরম মমতায় খোদাই করা হিটলারের প্রতি সমর্পিত বাণী, “‌পিতৃভূমির জন্য সমর্পিত, অ্যাডলফ হিটলার”। আর নীচের অংশে শোভা পাচ্ছে বড় বড় করে চিত্রিত আর্যরক্তের আভিজাত্যের প্রতীক স্বস্তিকা চিহ্ন।

১৯৩৪ সালে তৎকালীন হিটলারের সমর্থকপুষ্ট এক মেয়র এই ঘন্টাটি গির্জার সম্মুখে স্থাপন করেন। এভাবে বছরের পর বছরের গির্জা থেকে নিয়মিত ঘন্টার ধ্বনি শোনা যেতে থাকে। এই ঘন্টা বাজিয়েই গ্রামবাসীরা তাদের দৈনন্দিন জীবনের নানা শুভ কাজ সম্পন্ন করেন। গ্রামবাসীরা হয়তো এই ঘন্টার তাৎপর্যের কথা ভুলেই যেত, যদি না রোল্যান্ড বেকার নামের গ্রামের প্রাক্তন মেয়র বিষয়টি তুলে না ধরতেন। এর পরেই এই ঘন্টার কথা জার্মানির বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হওয়ায় তা সরানোর জোর দাবি ওঠে। 

গির্জার সেই ঐতিহাসিক ঘন্টা; Photo Credit: THOMAS LOHNES/GETTY images

ফলে সাড়ে সাতশ গ্রামবাসীর মধ্যে এ নিয়ে দ্বিধা-বিভক্তি দেখা দেয়। ঐ অঞ্চলের নির্বাচিত কয়েকজন কাউন্সিলর ঘন্টাটি অপসারণের দাবি তোলেন। আবার কয়েকজন ঘন্টাটি সংরক্ষণের প্রস্তাব করেন। তাদের বক্তব্য, নাৎসি যুগের স্থাপিত ঘন্টাটি জাতির অন্ধকার অতীতের স্মারক হিসেবে রেখে দেয়া হোক। এ নিয়ে সেখানকার কাউন্সিলের সদস্যদের মধ্যে ভোটাভুটিরও আয়োজন করা হয়। আর তাতে ১০-৩ ভোটে গির্জার ঘন্টা অপসারণের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যাত হয়।

জার্মানিতে হিটলারের শাসনামলে তার সমর্থনে দেশের বিভিন্ন গির্জা থেকে স্তোকবাক্য পাঠ করা হতো। পরবর্র্তীকালে তার এবং তার সরকারের পতনের পর সেই রীতি বিলুপ্ত হয়। কিন্তু আজও হার্কহিম আম বার্গ অঞ্চলের মতো জার্মানির বেশ কিছু গির্জায় বহাল তবিয়তে রয়ে গিয়েছে এমন কয়েকটি ঘণ্টা, যা অতীতের অন্ধকার দিনগুলোর কথা সবাইকে বারবার মনে করিয়ে দেয়।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply