‘রং ফর্সাকারী’ ক্রিমের বিজ্ঞাপনে ৫ বছর জেল, জরিমানার প্রস্তাব

[ad_1]

এ প্রস্তাবে রং ফর্সাকারী ক্রিম, যৌন ক্ষমতাবর্ধক, বন্ধ্যাত্ব দূর, বার্ধক্য নিরাময়, চুল সাদা হওয়া বন্ধ করা এবং মস্তিষ্কের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর ‘জাদুকরি’ ওষুধের বিজ্ঞাপনে ৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং ৫০ লাখ রুপি জরিমানার বিধান রাখার কথা বলা হয়েছে, জানিয়েছে এনডিটিভি।

খসড়া এ বিলে ১৯৫৪ সালের আগের আইনটির সঙ্গে বেশকিছু নতুন রোগ, ব্যধি ও শারীরিক পরিস্থিতির বিষয় যুক্ত করার কথাও বলা হয়েছে। 

প্রস্তাব করা হয়েছে তালিকাভুক্ত ৭৮টি রোগব্যধির ওষুধ, ‘জাদুকরি প্রতিকার’ ও এ সংক্রান্ত উপাদানের বিজ্ঞাপনে নিষেধাজ্ঞা দেওয়ার।

নতুন এ সংশোধনীতে আগের আইনের মধ্যে যৌন ক্ষমতাবর্ধক, রং ফর্সাকারী, বার্ধক্য নিরাময়, এইডস, চুল সাদা হওয়া বন্ধ, তোতলামি নিরসন ও বন্ধ্যাত্ব দূর করার ওষুধের বিজ্ঞাপনকে যুক্ত করার প্রস্তাব করা হয়েছে।

এখনকার আইনে, কেউ আপত্তিজনক বিজ্ঞাপনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে তাকে সর্বোচ্চ ছয় মাসের সাজা কিংবা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ড দেয়া যেতো। ধারাবাহিক অপরাধের জন্য সাজা মিলতো সর্বোচ্চ এক বছর পর্যন্ত দণ্ড কিংবা জরিমানা কিংবা উভয় দণ্ড।

সংশোধনীতে এ সাজা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। খসড়া বিলে বলা হয়েছে, প্রথমবার নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীর সর্বোচ্চ দুই বছর পর্যন্ত কারাদণ্ড এবং সর্বোচ্চ ১০ লাখ রুপি জরিমানা করা যেতে পারে। পরেরবার একই অপরাধ করলে সাজার পরিমাণ হতে পারে ৫ বছর পর্যন্ত; সঙ্গে জরিমানাও বেড়ে দাঁড়াবে ৫০ লাখ রুপি।

ভারতের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় বলছে, সময় ও প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মেলাতেই আইনের এ সংশোধন চাইছে তারা। বিলটি উত্থাপনের আগে এ নিয়ে জনসাধারণ ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পক্ষের মতামত, পরামর্শ ও আপত্তিও শুনবে তারা।

নোটিস দেয়ার ৪৫ দিন সময়ের মধ্যে এ মতামত, পরামর্শ ও আপত্তি জানানো যাবে, বলেছে তারা। 



[ad_2]

Source link

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply