রাজধানীর বংশাল থেকে জুতার কারিগরের লাশ উদ্ধার

নাহিদ দেওয়ান :

ইদানীং দেশে বেড়ে গেছে খুন-খারাবি। বিভিন্ন স্থান থেকে একের পর এক উদ্ধার হচ্ছে মরদেহ। এবার রাজধানীর বংশাল থানার আলু বাজার এলাকার একটি জুতা তৈরির কারখানা থেকে পিয়াল মিয়া  (১৮) নামে এক কারিগরের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় বাবু (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ অক্টোবর) সকালে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। পিয়াল কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী থানার পারদিয়া কুল গ্রামের লিকন মিয়ার ছেলে। গ্রেফতার বাবু কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী থানার কুরিখাইল গ্রামের মো. রবি মিয়ার ছেলে। এ ঘটনার পর থেকে জুতার কারখানার মালিক আল আমিন পালাতক রয়েছেন। 

বংশাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিন ফকির মিডিয়াকে বলেন,  সকালে স্থানীয়দের খবরের ভিত্তিতে আলু বাজারের ১০৪/৩ হাজী ওসমান গনি রোডের একটি বাড়ির দ্বিতীয় তলা থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতের গলায় আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর হাত-পায়ের রগ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় গ্রেফতার বাবু প্রাথমিকভাবে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

তিনি আরও বলেন, মরদেহ উদ্ধারের পরপরই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িতদের ধরতে পুলিশ মাঠে নামে এবং পুরান ঢাকার শিক্কাটুলি এলাকা থেকে বাবুকে গ্রেফতার করে। প্রাথমিক তদন্তে জানা যায় বাবু ও পিয়ালের মধ্যে মনোমালিন্য ছিল। পূর্ব কোনো শত্রুতা ছিল কি না বিস্তারিত জানার জন্য পুলিশ কাজ করছে।

মরদেহ দেখে পুলিশ ধারণা করছে এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে আরও কয়েকজন জড়িত থাকতে পারে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবার থানায় একটি মামলা করেছে।  এ মামলায় বাবুকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। মিটফোর্ড হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে স্বজনদের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান ওসি শাহিন।

সূত্র: বাংলা নিউজ২৪ ডটকম

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply