রোহিঙ্গাদেরকে আলাদা ভূমি দিতে বাংলাদেশকে আহবান তুরস্কের।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য শিবির নির্মাণ করার জন্য ভূমি বরাদ্দ দেয়ার আহবান জানিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) তুরস্কের সংবাদ সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি এমনই এক প্রতিবেদন প্রকাশ করে।

তিনি মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে জাতিসংঘের (ইউএন) সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনের এক ফাঁকে অনুষ্ঠিত একটি বৈঠকে কথা বলার সময় এই আহ্বান জানান। তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের সবচেয়ে মর্মান্তিক সমস্যাগুলোর একটি হলো রোহিঙ্গা সমস্যা। এই বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গা শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়ে ইতোমধ্যে প্রশংসা কুড়িয়েছে বাংলাদেশ।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের কাছে আমাদের অনুরোধ, আমরা যেমন সিরিয়ার শরণার্থীদের জন্য তুরস্কের ভূমি দিয়েছি, তেমনি বাংলাদেশ যেন রোহিঙ্গাদেরকে থাকতে নির্দিষ্ট জায়গা বরাদ্দ দেয়।

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর দমনপীড়নের মুখে ২০১৭ খ্রিষ্টাব্দের আগস্টের পর থকে দেশটির সাত লাখ ৫০ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা শরণার্থী পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। জাতিসংঘ রোহিঙ্গাদেরকে বিশ্বের সবচেয়ে নিপীড়িত জনগোষ্ঠী হিসেবে উল্লেখ করেছে। মিয়ানমারে ২০১২ সাম্প্রতিক সহিংসতায় কয়েক ডজন মানুষ নিহত হওয়ার পর থেকে আতঙ্কে ছিল তারা।

কাভুসোগলু বলেন, আমাদের বিশ্বাস রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরগুলোর সমস্যা দূরীকরণে বাংলাদেশের বোঝা কমাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এগিয়ে আসবে। তিনি বলেন, এই সমস্যার শুরু থেকেই আন্তর্জাতিক আলোচ্যসূচিতে এটিকে প্রাধান্য দিয়েছে তুরস্ক। এছাড়া বাংলাদেশ ও মিয়ানমার উভয় দেশের শরণার্থীদেরকে মানবিক সহায়তা দিয়েছে তুরস্ক।

তিনি আরও বলেন, তুরস্ক আশা করছে বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গাদেরকে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার প্রয়োজনীয় সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply