লাইট হাউজ পাড়া কটেজ থেকে স্বামী-স্ত্রী এবং এনজিও কর্মী পরিচয়দানকারী যুগলকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা

সিবিএন২৪ : কক্সবাজার পৌরসভার ১২ নং ওয়ার্ডের কলাতলী লাইট হাউস পাড়ায় স্বামী স্ত্রী পরিচয় এবং এনজিও কর্মী পরিচয়দানকারী এক যুগলকে (নাম জানা যায়নি) আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় এক সমাজসেবী সিবিএল২৪ ডটকমকে জানায়, তারা দীর্ঘদিন যাবত কলাতলী লাইট হাউস পাড়ায় স্বামী-স্ত্রী এবং এনজিও কর্মী পরিচয় দিয়ে একত্রে বসবাস করে আসছে। এই যুগলকে দেখে প্রথম থেকেই এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের গতিবিধি লক্ষ্যে করে গোপনে খবর নিলে বের হয়ে আসে সত্য।

ঐ সমাজসেবীর দাবি, তারা স্বামী-স্ত্রী ও এনজিও কর্মী পরিচয় দিয়ে আড়ালে পতিতার ব্যবসা করতো। স্থানীয় জনতা তাদের চ্যালেঞ্জ করে দ যে এনজিওতে চাকরি করে সে এনজিওর পরিচয়পত্র দেখাতে বললে তারা তা দেখাতে ব্যর্থ হয়। উপস্থিত জনতা তৎক্ষণাত তাদের আটক করে পুলিশে খবর দেয়।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, গতকাল ২৭ শে অক্টোবর বিকেল ৩ টার দিকে স্থানীয় যুব সমাজের কয়েক জন যুবক তাদের পিছু নেয়। তারা পিছু নিয়ে দেখতে পায় যে যুগলটি একজন যৌনকর্মীকে সাথে নিয়ে একটি কটেজে ঢুকে। সাথে যুবসমাজের উক্ত সদস্যরা এলাকাবাসীকে খবর দিলে এলাকাবাসী তাদের হাতেনাতে আটক করে।

আটকের পর স্থানীয় জনগণ ঐ এলাকার কাউন্সিলর কাজী মোরশেদ আহাম্মদ (বাবু) কে মোবাইল ফোনে এ বিষয়ে জানালে উপস্থিত জনতাকে বলেন- “আমি অন্যায় কে কখনো পশ্রয় দেইনি এবং দিবোও না। তোমরা তাদের আটক করে রাখো আমি থানায় কল দিয়ে পুলিশ পাঠাচ্ছি। পরবর্তীতে তিনি থানায় কল দিয়ে পুলিশ পাঠালে স্থানীয় জনগণ তাদের পুলিশের হাতে তুলে দেন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply