শ্রমিকদের কাজে ফিরার আহবান টেইলার্স ব্যবসায়ী এসোসিয়েশনের

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিঃ-

কক্সবাজারে দর্জি শ্রমিক ইউনিয়নের চলমান ধর্মঘটের প্রতিবাদে শ্রমিকদের কাজে ফিরার আহবান জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে টেইলার্স ব্যবসায়ী এসোসিয়েশন কক্সবাজারে জেলা শাখা।

মঙ্গলবার, (৩০ শে মার্চ) রাত সাড়ে ৮ টার দিকে কক্সবাজার পৌরসভার সাতকানিয়া লোহাগড়া সমিতির জেলা কার্যালয়ে এই আহবান জানিয়ে সংগঠনের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনে আয়োজন করা হয়।

এইসময় টেইলার্স ব্যবসায়ী এসোসিয়েশন ( টেইর্লাস মালিক সমিতি) এর জেলা কমিটির নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে সভাপতি মোনাফ সিকদার ও সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হক রাশেদ সাংবাদিকদের জানান, দর্জি শ্রমিকদের ৬ দফা দাবিতে আমরা ৫ দফা দাবি মেনে নিচ্ছিলাম। শুধু একটি দাবি উভয় পক্ষ বসে সমাধান করার কথা ছিলো। কিন্তু তারা সেটা না করে কারো ইশারায় বা কারো ইন্ধনে দুপুর থেকে কাজ বন্ধ করে ধর্মঘট ডাকে বসে রয়েছে। তাদের দাবি সম্পন্ন অযৌক্তিক, যা কোন ভাবে গ্রহণযোগ্য নয়।

সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের আরো জানান,আমাদের শ্রমিক এবং ক্রেতাদের স্বার্থ বজায় রেখে কাপড় সেলাইয়ের দাম নির্ণয় করতে হয়।
তাদের ৬ দফা দাবির মধ্যে ৫ দফা দাবি ইতিমধ্যে মেনে নেওয়া হয়েছে। বাকি ১টি দাবী পূরণের জন্য আশ্বাত করে আজকে রাত ৮টায় মিটিংয়ে বসার সিদ্ধান্ত হয়।
এবং তাদের বোনাসের ব্যাপারে ১৫% বৃদ্ধি সিদ্ধান্ত হয়েছে। বিগত ৩ বছর পূর্বে ক্রেতা সাধারণের কাছ হইতে দাম বৃদ্ধি করা হয়েছে সেইসাথে শ্রমিকদের মজুরিও বৃদ্ধি করা হয়েছে।

প্রতিটি শ্রমিক মালিকের কাছ হইতে অগ্রীম ১০ থেকে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে। যা ফেরত না দেয়ার অজুহাতে এইসব ধর্মঘট আহবান করেছে।
আমাদের পক্ষ থেকে ধর্মঘট ডাকা শ্রমিকদের প্রতি আহবান, আপনারা আসুন বসে কথা বলে দাম নির্ধারণ করি। আপনাদের ও বাঁচতে হবে আমাদের ও বাঁচতে হবে। একই সাথে ক্রেতাদের স্বার্থের বিষয়ে ভাবতে হবে। আপনারা কারো প্ররোচনায় না পড়ে কাজে ফিরে আসুন।

এর আগে গতকাল দুপুর হতে কক্সবাজার পৌর শহরের ফিরোজা শপিং কমপ্লেক্স,এস এ আলম মার্কেট, সুপার মার্কেট, বৌদ্ধ মন্দির সড়ক ও শাহবাগ মার্কেটের দর্জি শ্রমিকরা কাপড় সেলাইয়ের তাদের উল্লেখিত মূল্য তালিকা অনুযায়ী মূল্য পরিশোধ করার দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply