ষড়যন্ত্রকারী অসুরদের নিধন করতে ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

পরিশেষে এবারের হিন্দু সম্প্রদায়ের শারদীয়া দূর্গাপুজা স্বাস্থ্য বিধি মেনে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পালনের লক্ষ্যে আমার যা যা সাহায্য সহযোগিতা করতে হয় তা আমি করার জন্য সর্বদা প্রস্তুত আছি এবং কক্সবাজার জেলার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অতীতের ন্যায় এই বছরও বজায় রেখে শারদীয়া দূর্গাপূজা সম্পন্ন করব। সভার শেষে প্রধান অতিথি তার ব্যাক্তিগত তহবিল হতে ২১টি পুজা মন্ডপে ও ৫টি ইউনিয়ন পূজা উদযাপন পরিষদকে নগদ অর্থ প্রদান করেন।এদিকে একই দিন রবিবার ১৮ অক্টোবর বিকাল ৪টায় খুরুশকুলে ১১টি পূজা মন্ডপের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে শারদ শুভেচ্ছা সভা অনুষ্ঠিত হয়। খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের হল রুমে খুরুশকুল পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মাস্টার রতন কান্তি দে’র সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক দাশ এর সার্বিক পরিচালনায় এই শারদ শুভেচ্ছা সভা অনুষ্ঠিত হয়।এতে প্রধান অতিথি হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কক্সবাজার পৌর শাখার সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজসেবক জননেতা মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখা সহ-সভাপতি ও পৌর আওয়ামীলীগ এর সাধারন সম্পাদক উজ্জল কর।এসময় আরও বক্তব্য রাখেন হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ডাঃ পরিমল দাশ, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক স্বরুপম পাল পাঞ্জু, খুরুশকুল ইউনিয়ন পরিষদের এমইউপি মাখন কান্তি দে, রুদ্র পাড়া পূজা কমিটির সভাপতি মদন রুদ্র, ইউনিয়ন পুজা কমিটির অন্যতম সদস্য মনতোষ কান্তি দে, ডাঃ পরিতোষ কান্তি দে প্রমুখ। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন খুরুশকুল ইউনিয়নের ১১টি পুজা মন্ডপের সভাপতি/সাধারন সম্পাদক ও ইউনিয়ন পুজা কমিটির কর্মকর্তাবৃন্দ।এই সময় প্রধান অতিথি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম বলেন, সম্প্রীতির এই কক্সবাজারে আমরা হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খৃষ্টান সকল সম্প্রদায়ের মানুষ এক এবং অভিন্ন। আমরা এই শারদীয়া দুর্গাপুজা সুষ্ঠু এবং সুন্দরভাবে পালনের লক্ষ্যে যার যার অবস্থান থেকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পূজা উদযাপন করব এবং সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। বর্তমানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দেশ ও জাতির ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য কিছু সুযোগ সন্ধানী সড়যন্ত্রকারীরা সড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। এই সমস্ত অসুরদের নিধন করার জন্য আমাদের ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই। সভা শেষে খুরুশকুল ইউনিয়নের ১১টি পূজা মন্ডপের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পূজা কমিটিকে প্রধান অতিথি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে নগদ অর্থ প্রদান করেন।ভয়েস/আআ

আসন্ন শারদীয়া দূর্গাপূজা-২০ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পালনের লক্ষ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলার আওতাধীন বিভিন্ন ইউনিয়নের পূজা মন্ডপের সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে শারদ শুভেচ্ছা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৮ অক্টোবর রবিবার দুপুর ১২টায় বৃহত্তর ঈদগাঁও কালী মন্দির প্রাঙ্গনে মন্দির পরিচালনা পরিষদের সভাপতি পুলক কান্তি দে’র সভাপতিত্বে ও সদর উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক দাশ এর সার্বিক পরিচালনায় এই শারদ শুভেচ্ছা সভা অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত শারদ শুভেচ্ছায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কক্সবাজার পৌর শাখার সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজসেবক জননেতা মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখা সহ-সভাপতি ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক উজ্জল কর।এসময় আরও বক্তব্য রাখেন হিন্দ-বৌদ্ধ-খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ডাঃ পরিমল দাশ, সদর পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি ডাঃ সনজিত দাশ, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা হুমায়ুন কবির চৌধুরী হিমু, কালী মন্দির পরিচালনা পরিষদের সাধারন সম্পাদক এডঃ অশোক আচায্য প্রমুখ। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক স্বরুপম পাল পাঞ্জু, বিশিষ্ট সমাজসেবক মৃনাল আচার্য্য, সাবেক ইসলামাবাদ ইউনিয়নের সভাপতি বাবুল কান্তি দে, যুবনেতা অনুপম পাল অনু, সদর উপজেলা পূজা কমিটির গণসংযোগ বিষয়ক সম্পাদক সাগর দত্ত, জালালাবাদ ইউনিয়নের সভাপতি ডাঃ বিকাশ কান্তি দে, সাধারণ সম্পাদক বিধু রঞ্জন দে, ইসলামাবাদ ইউনিয়নের সভাপতি সুমন কান্তি দে, সাধারন সম্পাদক নিখিল দাশ, ঈঁদগাও ইউনিয়নের সভাপতি সত্যজিত দাশ গুপ্ত সুজন, সাধারন সম্পাদক জনি পাল, চৌফলদন্ডি ইউনিয়নের সভাপতি সুরেশ শর্মা, সাধারন সম্পাদক টিটু কান্তি দে, ভারুয়াখালী ইউনিয়ের সভাপতি আপন শর্মা, পোকখালি ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক পলাশ কান্তি দে সহ ২১টি পূজা মন্ডপের সভাপতি/ সাধারন সম্পাদক এবং পুজারীবৃন্দ।এই সময় প্রধান অতিথি মোহাম্মদ নজিবুল ইসলাম বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ডাকে ১৯৭১ সালে যেভাবে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ, খৃষ্টান সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে দেশ স্বাধীন করেছে আজ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্ষুধা, দারিদ্র, সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ মুক্ত সোনার বাংলাদেশ বিনির্মানে, আমরা সকল জাতিধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার দৃড় প্রত্যই ব্যাক্ত করছি।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply