সন্ধ্যার পর ছাত্রদের বাইরে পাওয়া গেলে গ্রপ্তার

হালুয়াঘাট, ময়মনসিংহ:

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে কিশোর অপরাধ,মাদক ও ইভটিজিং নির্মূলে থানা পুলিশ অভিনব কৌশল অবলম্বন করেপণন। সন্ধার পর কোন ছাত্র বাহিরে থাকলে তাদেরকে গ্রেফতার প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার বিশ্বাস।

জানা যায়, গত ১ অক্টোবর থেকে উপজেলার প্রায় পঞ্চাশটি স্পটে কিশোর অপরাধ ও মাদক নির্মূল করতে থানা পুলিশ বিশেষ অভিযান পরিচালনা শুরু করেছেন। চিহ্নিত স্পটে সন্ধা ৭ ঘটিকা থেকে রাত ১২ ঘটিকা পর্যন্ত কোন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ উঠতি বয়সী যুবকরা আড্ডায় মগ্ন থাকিলে তাদেরকে গ্রেফতার করে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থধা গ্রহন করা হবে। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় ১৮ জন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের আটক করেন থানা পুলিশ।

পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও অভিবাবকদের সমন্ময়ে আলোচনার মাধ্যমে অভিবাকদের জিন্মায় মুচলেকার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মুক্তি দেওয়া হয়। উপজেলার সকল শিক্ষার্থীদের উজ্বল ভবিষৎত নিশ্চিত করতে ও কিশোর অপরাধ এবং মাদক নির্মূল করতে থানা পুলিশ এই কৌশল অবলম্বন করেন। পাশাপাশি অভিবাবকদের নিজেদের সন্তানদের প্রতি খেয়াল রাখতে আহবান জানান।

হালুয়াঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার বিশ্বাস এ প্রতিবেদককে জানান, উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও হালুয়াঘাট সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আলমগীর পিপিএম এর নির্দেশে কিশোর অপরাধ,মাদক ও ইভটিজিং,অনলাই জুয়া, ফেইসবুকিং ও কিশোর গ্যাং এর মত জঘন্যতম অপরাধ থেকে মুক্ত করতেই এই অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।

নির্মূলে উপজেলার প্রায় পঞ্চাশটি স্পটে থানা পুলিশ ইতমধ্যো অভিযান পরিচালনা শুরু করেছে। চিহ্নিত স্পটে সন্ধা ৭ ঘটিকা থেকে রাত ১২ ঘটিকা পর্যন্ত কোন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীসহ উঠতি বয়সী যুবকরা আড্ডায় মগ্ন থাকিলে তাদেরকে গ্রেফতার করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। কোন ভাল ছাত্র সন্ধার পর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত লিখা-পড়া বাদ দিয়ে বন্ধু-বান্ধবের সাথে আড্ডায় মগ্ন থাকতে পারে না। বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে প্রায় ১৮ জন শিক্ষার্থীদের চিহ্নিত স্পট থেকে আটক করা হয়।

পরে হালুয়াঘাট পৌর সভার প্রথম নির্বাচিত মেয়র খায়রুল আলম ভূঞা, উপজেলা কমিউনিটিং পুলিশের সভাপতি অধ্যাপক আব্দুল মান্নান, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা কমিউনিটিং পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মোরর্শেদ আনোয়ার খোকন ও অভিবাকদের সমন্ময়ে মুচলেকার মাধ্যমে আটককৃত শিক্ষার্থীদের মুক্তি দেওয়া হয়। কিশোর অপরাধ,মাদক ও ইভটিজিং নির্মূলে থানা পুলিশের অভিনব এ কৌশলকে স্বাগত জানিয়েছেন অভিবাকগণ।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply