সম্রাটকে হত্যা করতে ৫টি একে-২২ এনেছিলো জিসান-খালেদ!

বাংলা ইনসিডার ডটকম:

শুদ্ধি অভিযান শুরু হওয়ার পর দেশের আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ে বেরিয়ে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। স্বাভাবিকভাবে সবাই জানতো যে, যুবলীগ নেতা খালেদ এবং সম্রাটের মধ্যে চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে। আন্ডারওয়ার্ল্ডের আরেক ডন জিসানের সাথেও এই দুজনের সখ্যতা ছিল বলে ধারণা করতো সবাই। কিন্তু এখন শোনা যাচ্ছে, ভেতরের কাহিনী পুরোই উল্টো। যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন সম্রাটকে গোপনে হত্যা করতে চেয়েছিল জিসান এবং খালেদ।

আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার একটি সূত্র জানাচ্ছে, গত এপ্রিলে দুবাইয়ে জিসান-খালেদ বৈঠক হয়। সেখানে সম্রাটকে হত্যা করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়। সেই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে বান্দরবান থেকে খালেদ পাঁচটি একে-২২ রাইফেল ঢাকায় আনেন। এগুলোর মধ্যে গত ৩০ জুন সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল এলাকা ও খিলগাঁও থেকে দুটি একে-২২ রাইফেল উদ্ধার করে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত চার জনের কাছ থেকে ডিবি জানতে পারে যে চাঁদাবাজির আন্ডারওয়ার্ল্ড নিয়ন্ত্রণের জন্য জিসান-খালেদের নির্দেশে তারা এসব একে-২২ রাইফেল ঢাকায় এনেছিল। হত্যার পরিকল্পনা ফাঁস হয়ে যাওয়ার আগেই সম্রাট বিষয়টি টের পান। এরপর থেকে সম্রাট ও খালেদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হতে থাকে। সম্রাট তার চলাফেরায় অনেকটা গোপনীয়তা নিয়ে আসেন। তাকে বহন করা গাড়ির আগে ও পেছনে অন্তত ছয়টি গাড়িতে ক্যাডার নিয়োজিত করা হয়। এসব ক্যাডারের কাছে ২০-২৫টি আগ্নেয়াস্ত্র ছিল বলে খালেদ গোয়েন্দা সংস্থার জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন। এমনকি বিশ্বস্ত কেউ না হলে তার সঙ্গে সাক্ষাত্ও বন্ধ করে দেন সম্রাট।

উল্লেখ্য, খালেদকে গত মাসেই গ্রেপ্তার করেছে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা। দুবাইয়ে পলাতক জিসানকেও গত শুক্রবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আর সম্রাটকে গতকাল শনিবার দিবাগত রাত ১২ টা নাগাদ গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে র্যাব।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply