সহকারী জজ হলেন কক্সবাজারের ৬ কৃতি সন্তান

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার জেলার ৬ জন কৃতি সন্তান সহকারী জজ পদে দেশের বিভিন্ন জজশীপে নিয়োগ পেয়েছেন। বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের পরামর্শক্রমে বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশন (বিজেএসসি) এর ২ মার্চের সুপারিশের ভিত্তিতে কক্সবাজারের এ ৬ জন কৃতি সন্তান সহ ৯৭ জনকে শিক্ষানবিশ বিচারক হিসাবে
সাময়িকভাবে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। গত ২৫ নভেম্বর আইন ও বিচার বিভাগের বিচার শাখা-৩ এর উপসচিব (প্রশাসন-১) শেখ গোলাম মাহবুব স্বাক্ষরিত ৫২৫ নম্বর স্মারকে জারীকৃত এক প্রজ্ঞাপনে বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিস কমিশন (বিজেএসসি) এর ১৩ তম ব্যাচে উত্তীর্ণ হওয়া এ ৯৭ জন নবীন বিচারককে দেশের বিভিন্ন আদালতে নিয়োগ দেওয়া হয়। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া প্রায় ৮ হাজার প্রার্থী হতে এ ৯৭ জন বিচারক চুড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ হন।

কক্সবাজার জেলা থেকে বাংলাদেশ বিচার বিভাগের সদস্য হওয়ার গৌরব অর্জন করা কৃতি সন্তানেরা হলেন-সোহেল উদ্দিন খোকন। তাঁর পিতার নাম-নুরুল আজিম। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৩২ তম। তাঁর পরীক্ষার রোল নম্বর : ৫৪৩৮। তাঁর জন্ম : ১৯৯১ সালের ২০ জুন। সোহেল উদ্দিন খোকন-কে সিলেট জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

দ্বিতীয়জন হলেন-সাইফুল ইসলাম। তাঁর পিতার নাম-জাগির হোসাইন। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৩৪ তম। পরীক্ষার রোল নম্বর : ৩৪৮৪। তাঁর জন্ম : ১৯৯৪ সালের ৬ জুলাই। সাইফুল ইসলাম-কে কুমিল্লা জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

তৃতীয়জন হলেন-মোঃ ছিদ্দিক আজাদ। তাঁর পিতার নাম-আবদুর রহিম। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৫৫ তম। পরীক্ষার রোল নম্বর : ৩৯৬০। তাঁর জন্ম : ১৯৯৫ সালের ৪ ফেব্রুয়ারী। তাঁর নিজ বাড়ি কুতুবদিয়া উপজেলায়। মোঃ ছিদ্দিক আজাদ-কে ফেনী জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

চতুর্থ জন হলেন-ফারহান সামিন। তাঁর পিতার নাম-মোঃ এমরান। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৬২ তম। পরীক্ষার রোল নম্বর : ৩১৯৬। তাঁর জন্ম : ১৯৯৫ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর। তাঁর নিজ বাড়ি কক্সবাজার শহরের কালুরদোকান এলাকায়। ফারহান সামিন কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় হতে এসএসসি, কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে এইসএসসি এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে অনার্স সহ এলএলএম ডিগ্রি নিয়েছেন কৃতিত্বের সাথে। ফারহান সামিন-কে হবিগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

পঞ্চম জন হলেন-মো: আবদুর রহমান। তাঁর পিতার নাম-জাফর আলম। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৭৯ তম। পরীক্ষার রোল নম্বর : ৬৬৮৫। তাঁর জন্ম : ১৯৯৪ সালের ২ মে। তাঁর নিজ বাড়ি ঈদগাঁহ উপজেলায়। মো: আবদুর রহমান খুটাখালী কিশালয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন হতে এসএসসি, কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে এইসএসসি এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে অনার্স সহ এলএলএম ডিগ্রি নিয়েছেন কৃতিত্বের সাথে।মো: আবদুর রহমান-কে জামালপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

ষষ্ঠ জন হলেন-মো: লোকমান হাকিম। তাঁর পিতার নাম-এম আহমদ। ১৩ তম বিজেএসসি পরীক্ষায় তাঁর মেধাক্রম-৮০ তম। পরীক্ষার রোল নম্বর : ২৬০৩। তাঁর জন্ম : ১৯৯৪ সালের ৬ আগস্ট। তাঁর নিজ বাড়ি রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের থিমছড়ি এলাকায়। অধ্যক্ষ ওবায়দুল হাকিম ও অধ্যাপক আবদুল হাকিম হচ্ছেন মো: লোকমান হাকিম এর বড় ভাই। মো: লোকমান হাকিম কক্সবাজার সরকারি কলেজ থেকে এইসএসসি এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগ থেকে ২২ তম ব্যাচে অনার্স সহ এলএলএম ডিগ্রি নিয়েছেন কৃতিত্বের সাথে। মো: লোকমান হাকিম-কে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ বিচার বিভাগের সদস্য হওয়ার অসাধারণ গৌরব অর্জন করা কক্সবাজারবাসীর গর্বের ধন এই ৬ জন নবীন বিচারক গত ১ ডিসেম্বর নিজ নিজ কর্মস্থলে যোগদান করেছেন বলে সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply