সাতকানিয়ার আলোচিত মোছাদ্দেকের খুনি সোহেল বন্দুকযুদ্ধে নিহত

সাতকানিয়া প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রাম সাতকানিয়ার আলোচিত যুবলীগ নেতা মোছাদ্দেকুর রহমানের খুনি ইয়াবা ব্যবসায়ী মোঃ সোহেল (৩২) পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছে। আজ ২৭ জুন দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার রূপকানিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ রূপকানিয়ার গাজীর পাড়া কুতুবুর দীঘির পাড় এলাকায় মাদকসেবীদের আস্তানায় অভিযান চালালে এ বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে।  এতে সাতকানিয়া থানার ৫ পুলিশ আহত হয়েছে।  পুলিশ মাদকসেবীদের আস্তানা থেকে বিভিন্ন অস্ত্র, ইয়াবাসহ অন্যান্য মাদকদ্রব্য উদ্ধার করেছে

বন্দুকযুদ্ধে নিহত খুনি ইয়াবা ব্যবসায়ী সোহেল

উল্লেখ্য, এলাকায় মাদক ব্যবসা ও অসামাজিক কার্যকলাপ অশংকাজনক হারে বেড়ে যাওয়ায় তা নির্মূলের জন্য কয়েক মাস আগে মোছাদ্দেক নিজ উদ্যোগে স্থানীয় বাসিন্দাদের সম্পৃক্ত করে বারদোনা মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটি গঠন করেন। ঐ কমিটির আহবায়ক হিসেবে দায়িত্বরত ছিলেন তিনি। এরই ধারাবাহিকায় গত ২০জুন বিকালে সাতকানিয়া সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদের বাড়িতে কমিটির লোকজনের সাথে বৈঠক করে। এ নিয়ে বেশ চটে যায় ঐ এলাকার ইয়াবা ব্যবসায়ী ও কিশোর গ্যাং লিডার হিসেবে পরিচিত মো. সোহেল। এর ঠিক দু’দিন পর ২৩জুন সোমবার বিকালে আসরের নামাজ পড়ে মোছাদ্দেক লিচু গাছ তলার দিকে হাঁটতে যান। সোহেলের বাড়ির পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় সোহেল মোছাদ্দেকের নাম ধরে গালিগালাজ করে। মোছাদ্দেক গালিগালাজ কেন করা হচ্ছে জানতে চাইলে তাদের মধ্যে বিতন্ডা হয় এবং এক পর্যায়ে সোহেল ছুরিকাঘাত করলে মোছাদ্দেক মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। এসময় মোছাদ্দেকের চিৎকারে ঘটনাস্থলের পাশেই খেলারত বেশ কয়েকজন এগিয়ে আসে। তাদের মধ্যে মোছাদ্দেকের ছোট ভাই ফয়সালকেও (৩৫) ছুরিকাঘাত করে সোহেল দ্রুত পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য দুইজনকেই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মোছাদ্দেককে মৃত ঘোষণা করেন। আহত অপর ভাই ফয়সালুর রহমান চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply