হাসপাতালে স্ত্রীর লাশ রেখে স্বামী লাপাত্তা

হাসপাতালে স্ত্রীর লাশ ফেলে পালাল স্বামী

সুবর্ণচর, নোয়াখালী:

নোয়াখালীর সূবর্ণচরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন ও শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবারের সদস্যরা।

পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে গৃহবধূর মরদেহ ফেলে পালিয়েছে ঘাতক স্বামী ও তার স্বজনরা।

বুধবার সকালে মরদেহের সুরুতহাল করেছে সুধারাম থানা-পুলিশ।

নিহতের স্বজনরা জানান, সাড়ে চার বছর আগে সূবর্ণচরের চরহাসান গ্রামে সফু তালুকদারের ছেলে জামাল উদ্দিনের সঙ্গে পাশের গ্রামের চর রশিদের মৃত আবুল কালামের মেয়ে মারিয়া আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য ও পারিবারিক বিরোধের জেরে গৃহবধূকে স্বামী, শ্বাশুড়ি, ননদ ও দেবর মিলে মঙ্গলবার বিকেলে মারধর করে ও শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। কিন্তু তারা বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রচার করে। পরে তাকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিল ডা. তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এসময় হাসপাতালে মরদেহ রেখে স্বামী ও তার স্বজনরা পালিয়ে যায়।

নিহতের স্বজনরা আরও অভিযোগ করেন, স্বামী ও শ্বশুর পরিবারের নির্যাতনের কারণে এর আগে সে থানায় দুইটি
জিডি করেছে।

চরজব্বর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. ইব্রাহিম খলিল জানান, যেহেতু হাসপাতালে মারা গেছে। মামলাও সেখানে হবে।

তারা ময়নাতদন্ত রিপোর্টের পর ব্যবস্থা নেবেন বলে জানান, সুধারাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) আব্দুল বাতেন জানান লাশের সুরুত হাল করা হয়েছে।

এদিকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে নিহতের চাচা সিরাজুল ইসলাম জানান।

সুত্র: নিউজ টোয়েন্টিফোর

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply