হ্নীলায় পুলিশ মাদককারবারি বন্দুক যুদ্ধে নিহত-১ ; মাদকের চালান বোঝাই সিএনজি ভস্মিভূত

টেকনাফ প্রতিনিধিঃ

হ্নীলায় সিএনজিযোগে মাদকের চালান গন্তব্যে নেওয়ার পথে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে এক মাদক কারবারী গ্রুপের সদস্য নিহত হয়েছে। এসময় অগ্নিকান্ডে মাদকের চালান বহনকারী সিএনজি পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে। ঘটনাস্থল হতে ইয়াবা ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

জানা যায়, ২৪জুন ভোর ৫টারদিকে একটি সিএনজি মাদকের চালান নিয়ে রঙ্গিখালী লামার পাড়ায় যাওয়ার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ মডেল থানার একদল পুলিশ প্রধান সড়কের ৩ রাস্তার মাথায় অবস্থান নেয়। তখন গাড়িতে থাকা স্বশস্ত্র মাদক কারবারী গ্রুপের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চালায়। তখন পুলিশ কৌশলী ভূমিকা নিয়ে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে কিছুক্ষণ পর হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। দু.পক্ষের গোলাগুলিতে মাদক বহনকারী সিএনজিতে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয়। তা নিমিষেই পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। এরপর ঘটনাস্থল তল্লাশী করে বিপূল পরিমাণ ইয়াবা, দেশীয় অস্ত্র ও বুলেটসহ গুলিবিদ্ধ রঙ্গিখালী লামার পাড়ার মৃত সোলেমানের পুত্র ঈমান হোছন ওরফে ইমন (৩৬) কে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে।

তাকে দ্রæত চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখান হতে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। সেখানে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইমনকে মৃত ঘোষণা করে। পুলিশ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরীর পর মৃতদেহ পোস্ট মর্টেমের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের পক্ষ থেকে এই অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করা হলেও উদ্ধারকৃত মাদক এবং অস্ত্রাদির ব্যাপারে বিস্তারিত এখনো জানানো হয়নি।

উল্লেখ্য, এই বৃহত্তর রঙ্গিখালী এলাকায় বিভিন্ন পেশার আড়ালে এখনো কৌশলে মাদক কারবার অব্যাহত থাকায় অপহরণ, মুক্তিপণ,কলহ-বিবাদ থামানো যাচ্ছেনা বলে বিভিন্ন মহলের অভিমত।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply