হ্নীলা হোয়াব্রাংয়ে ইয়াবা সিন্ডিকেটের অপতৎপরতা বৃদ্ধি

টেকনাফ টুডে নিউজঃ

টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা নাফনদীর তীরে অবস্থিত কয়েকটি গ্রামের মধ্যে হোয়াব্রাং একটি জনবহুল গ্রাম। এই গ্রামটি প্রধান সড়ক এবং বেড়িবাঁধের মধ্যবর্তী আলাদা একটি জনবসতি হওয়ায় মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনাকারী আইন-শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা তুলনামূলক কম হওয়ায় এই গ্রামে গড়ে উঠা শক্তিশালী একটি চোরাচালান ও মাদক কারবারী সিন্ডিকেট করোনাকালেও বিভিন্ন মুখোশের আড়ালে তৎপর রয়েছে।

জানা যায়, আজ শনিবার (৪ জুলাই) ভোরে হ্নীলা হোয়াব্রাং বেড়িবাঁধ সংলগ্ন এলাকার জনৈক লালু ও নুরুল আলমের বাড়ির উত্তর পাশ দিয়ে ইয়াবার একটি চালান খালাসের সময় সীমান্ত রক্ষী বিজিবির টহলের কারণে ইয়াবা চালানের কিছু অংশ পানি ফেলে দেয় আর কিছু অংশ নিয়ে মাদক পাচারকারীরা মিয়ানমার সীমান্তে পালিয়ে যায়।

বিশ্বব্যাপী চলমান করোনা সংকটের মধ্যেও গত মাসেও হোয়াব্রাং পয়েন্ট দিয়ে মাদকের চালান খালাসের সময় স্থানীয় বিজিবি জওয়ানেরা ইয়াবার চালান জব্দ করতে সক্ষম হয়। তবুও এসব মাদক অপতৎপরতায় লিপ্তদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা সম্ভব হয়নি।

উক্ত পয়েন্টে আলাদা ৩টি গ্রুপ যাবতীয় অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে বলে জনা যায়। অনেকে ভিন্ন এলাকার মাদক বহনকারীদের ব্যবহার করে বিভিন্ন সময়ে কোটি কোটি টাকার মাদকের চালান দেশের বিভিন্ন জায়গায় পাচার করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

স্থানীয় সুত্র মতে, পেশী শক্তির দাপটে এলাকার সমাজপতিরা মাদক কারবারীদের শেল্টার প্রদান ও কমিশন গ্রহণের মাধ্যমে এসব অপতৎপরতা জিঁইয়ে রেখেছে। এসব অসাধু ব্যক্তিদেরও শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা হলে এই পয়েন্টে মাদক ও চোরাচালান নিয়ন্ত্রণ সম্ভব বলে লোকজন মনে করেন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply