১১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি পদে মাসুম এগিয়ে

পরিতোষ বড়ুয়া পবন :

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় সংসদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক জেলা উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের কাউন্সিল শুরু হয়েছে কক্সবাজার জেলায়।পৌর আওয়ামীলীগের বেশ কয়েকটি সম্মেলনে তরুণ ও মেধাবী নেতৃত্ব এবং ক্লীন ইমেজের ব্যক্তিদের সভাপতি/সাধারন সম্পাদক করা হয়েছে। ১১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক ইউনিটের ৫১ জন ভোটার ১৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কাউন্সিলে পছন্দের প্রার্থীকেট ভোট প্রদানের মাধ্যমে আগামী তিন বছরের জন্য নির্বাচন করবেন পৌর ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতৃত্ব। ইতোমধ্যে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদে ৭জন ত্যাগী প্রার্থী নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দিয়েছেন। এর মধ্যে সভাপতি পদে ৪জন ও সাধারণ সম্পাদক পদে ৩জন প্রার্থীর নাম জোরেশোরে শোনা যাচ্ছে। প্রার্থীরা প্রচারণাও চালাচ্ছেন জোরেশোরে। তৃণমূলের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করার। অবশেষে সেই মূল্যায়নের চাবিকাঠি এবার তৃণমূলের হাতেই দিচ্ছে পৌর আওয়ামীলীগ। ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করতে পারবেন বলে অত্যন্ত খুশি তৃণমূল নেতারাও। কাউন্সিলারগণও তাদের নেতা নির্বাচন করার জন্য অধীর আগ্রহে বসে আছেন। দীর্ঘদিন পর কাউন্সিলের মাধ্যমে কমিটি গঠনের উদ্যোগকে স্বাগত জানাচ্ছে কাউন্সিলগণ। এবারে কাউন্সিলর নির্বাচনে তরুণ আওয়ামীলীগ নেতা ও বর্তমান কমিটির যুগ্নসম্পাদক মো: হোসেন মাসুম নিজেকে সভাপতি হিসেবে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন, তিনি গত পৌরসভা নির্বাচন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও সর্বশেষ উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে বিজয়ী করতে অনন্য ভূমিকা পালন করেন।তাই তৃণমূল সভাপতি হিসেবে পছন্দের তালিকায় মাসুমকে এক নম্বরে রেখেছে।

সিবিএল২৪কে দেয়া সাক্ষাতকারে ১১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী মো: হোসেন মাসুম বলেন, ” অত্র ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা আমার পক্ষে আছেন এবং তাদের সমর্থনের কারণেই আমি এবারে কাউন্সিলে সভাপতির পদে প্রতিদ্বন্দিতা করছি।”

মাসুম আরো বলেন,” কাউন্সিলরগণ ভোটের সুযোগ পেলেই যে তাকে ১১ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি নির্বাচন করবেন এ ব্যাপারে কোন সন্দেহ নেই।”

মাসুম মনে করেন, এ কাউন্সিলের মাধ্যমে রাজপথে মাথার ঘাম পায়ে ফেলা নেতাকর্মীদের নেতৃত্ব বাছাই করা হবে এবং দু্র্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে চলমান জননেত্রী শেখ হাসিনার আন্দোলনকে আরও বেশি শক্তিশালী এবং বেগবান করে তুলবে।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply