৪ দিন ধরে প্রেমিকার অনশন, অবশেষে বিয়ে।

বার্তাবাজার নিউজ:

ঝিনাইদহের বামনাইলে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশনরত তরুনীকে অবশেষে বিয়ে করলেন প্রেমিক মিঠুন মন্ডল। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে সামাজিকভাবে স্থানীয় মাতব্বরদের উপস্থিতিতে মন্দিরে গিয়ে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয় বলে জানা গেছে।

জানা যায়, গত শুক্রবার বিকেলে ফুরসন্ধি ইউনিয়নের বামনাইল গ্রামের বিমল মন্ডলের ছেলে মিঠুন মন্ডলের বাড়িতে আসেন তার প্রেমিকা। এসময় কৌশলে পেমিকাকে ওই বাড়িতে রাখা হয় এবং প্রেমিক বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। তারপর থেকে বিয়ের দাবিতে মিঠুন মন্ডলের বাড়িতে অনশন শুরু করে। এক পর্যায়ে মিঠুন মন্ডল বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করার হুমকি দেয় তরুণী।

এ বিষয়ে দফায় দফায় ওয়ার্ড ইউপি সদস্যসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের নিয়ে সমঝোতার বৈঠক হয়। প্রাথমিক পর্যায়ে প্রেমিক মিঠুন মন্ডলকে পাওয়া না যাওয়ায় স্থানীয়দের পক্ষ থেকে মিঠুন মন্ডলের পরিবারের জিম্মায় রাখা হয় তরুণীকে। তিনদিন পর সোমবার রাত সাড়ে ৯ টায় মিঠুন মন্ডল বাড়িতে আসেন এবং সামাজিকভাবে স্থানীয় মন্দিরে তাদের বিয়ে সম্পন্ন করা হয়।

এ বিষয়ে অনশনরত প্রেমিকা বলেন, আমার বাড়ি মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলার বাকলবাড়িয়া গ্রামে। দীর্ঘ ৪ বছর ধরে মিঠুন মন্ডলের সাথে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। আমাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে মিঠুন মন্ডল । এমনকি সে নিয়মিত আমাকে বিভিন্নস্থানে নিয়ে যেত। অনশনরত থাকা অবস্থায় অবশেষে সামাজিকভাবে আমাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য সুসেন শিকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply