বড় ‘গোঁজামিল’ চবির দুই ইউনিটের প্রকাশিত রেজাল্টে, দায় নেবে না কমিটি

চট্টগ্রাম প্রতিদিনঃ
মূলপাতাক্যাম্পাস প্রতিদিনচট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়
বড় ‘গোঁজামিল’ চবির দুই ইউনিটের প্রকাশিত ফলাফলে, দায় নেবে না কমিটি
জিপিএ থেকে ২০ নম্বর গুণতে গিয়ে ভুলের শুরু

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) প্রথম বর্ষের ‘এ’ ও ‘সি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার প্রকাশিত ফলাফলে বড় ধরনের অসঙ্গতির অভিযোগ উঠেছে। এক শিক্ষার্থীর দেওয়া অভিযোগ খতিয়ে দেখতে গিয়ে এই গোঁজামিলের প্রমাণ মিলেছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র। এ বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করতে বুধবার (২৪ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে ভর্তি পরীক্ষার কোর কমিটির জরুরি সভা আহ্বান করা হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা ১২০ নম্বরে অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ১০০ নম্বর লিখিত ও ২০ নম্বর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের জিপিএ থেকে নির্ধারণ করা হয়। জিপিএ থেকে প্রাপ্ত নম্বর নির্ধারণের জন্য মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফলের ডাটা সংশ্লিষ্ট বোর্ড থেকে টেলিটকের মাধ্যমে সংগ্রহ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেল।

তবে এবার যশোর বোর্ডের জিপিএ নম্বরের ক্ষেত্রে প্রাপ্ত জিপিএর তিন ডিজিটের শেষ ডিজিট গণনা করা হয়নি বলে এ ইউনিটের এক ভর্তিচ্ছু অভিযোগ করেন। পরবর্তীতে অভিযোগ খতিয়ে দেখতে গিয়ে ‘এ’ ও ‘সি’ দুই ইউনিটে একই অসঙ্গতির প্রমাণ মিলেছে। তবে সংশ্লিষ্ট ইউনিট কো-অর্ডিনেটর ও জয়েন্ট কো-অর্ডিনেটরদের দাবি, আইসিটি সেলের কারণে এমন ভুল হয়েছে। তাই এই ভুলের দায়িত্ব আইসিটিকেই নিতে হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ‘সি’ ইউনিটের কো-অর্ডিনেটর ও ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক মো. হেলাল উদ্দীন নিজামী চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমরা আইসিটি সেলে ১০০ নম্বরের পরীক্ষার যে ফলাফল তৈরি করে পাঠিয়েছি, সেখানে কোন ভুল নেই। ভুল হয়েছে জিপিএ থেকে ২০ নম্বর গণনার ক্ষেত্রে। সেটি আইসিটি ও সফটওয়্যারের। আইসিটি সেলের পরিচালক আমাকে বিকেলে কল দিয়ে জানিয়েছেন এটা সফটওয়্যারের বিচ্যুতি। একই সাথে তারা যে ইনপুট দিয়েছেন সেখানেও বিচ্যুতি থাকতে পারে। এটা তাদের অপারেশনাল সমস্যা। এখানে আমাদের ভুল নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ বিষয়ে আইসিটি থেকে লিখিত পেলে আমরা ইউনিটি কমিটি বসে ফলাফলের বিষয়ে তাদের বিচ্যুতি নিয়ে আমাদের সিদ্ধান্ত কোর কমিটিকে জানাবো।’

অধ্যাপক হেলাল উদ্দীন নিজামী বলেন, ‘এই সমস্যা সম্পর্কে আমাদের যথাসময়ে জানানো হয়নি। এই ভুলের বিষয়টা আমাদের কাছে গোপন করা হয়েছে। আমাদের আগে জানানো হলে আমরা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দিতে পারতাম।’

একই বিষয়ে জানতে চাইলে ‘এ’ ইউনিটের একজন জয়েন্ট কো-অর্ডিনেটর নাম প্রকাশ না করার শর্তে চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘একজন শিক্ষার্থী ফলাফলে জিপিএ নম্বর গণণার ক্ষেত্রে ভুল হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন। ফলাফলে জিপিএর নম্বর যোগ করার দায়িত্ব আইসিটির। এ বিষয়ে সকালে কোর-কমিটির সভা আছে। সেখানে বিস্তারিত আলোচনা হবে।’

এ বিষয়ে জানতে আইসিটি সেলের পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ খায়রুল ইসলামকে একাধিকবার ফোন করা হলেও তার সাড়া মেলেনি।

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এস এম মনিরুল হাসান চট্টগ্রাম প্রতিদিনকে বলেন, ‘ভুল হলে সেটা সংশোধন করা হবে। তবে এটার সাথে আমি কোনভাবেই জড়িত নই।’

Leave a Reply