শেষ মুহূর্তের পৌর ও ইউপি নির্বাচনী প্রচারণায় সরগরম মহেশখালী

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
মহেশখালী পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচনের শেষদিনে প্রচারণায় ব্যস্ত প্রার্থী ও তাদের সমর্থকেরা শেষ মুহূর্তের প্রচার-প্রচারণায় সরগরম মহেশখালী পৌরসভা ও ৩ টি ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) নির্বাচনী মাঠ। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনকে ঘিরে কাক ডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে প্রার্থীদের প্রচারণা। নানা প্রতিশ্রুতি ও আশ্বাসের ফুলঝুড়ি নিয়ে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। যোগ্য প্রার্থীকে নির্বাচিত করতে ভোটারদের মধ্যেও রয়েছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। বিগত দিনে পাশে থেকেছেন, উন্নয়ন করেছেন এমন প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার কথা জানিয়েছেন সাধারণ ভোটাররা। এ ছাড়া নতুন প্রার্থীদেরও বেশ কদর রয়েছে।
এবার প্রথম ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ মহেশখালী পৌরসভায়। ইউনিয়নের কেন্দ্রেই ইভিএমএ ব্যবহার হবে না। ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যে সংশ্লিষ্টদের প্রশিক্ষণসহ ইভিএমে ভোট দেওয়ার পদ্ধতি সম্পর্কে ভিডিওচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে পৌরসভায়।
মহেশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জুলকার নাঈম জানান, ২০ শে সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে পৌরসভা ও ৩টি ইউনিয়নের মধ্যে চেয়ারম্যানসহ সদস্য প্রার্থীর ভোট অনুষ্ঠিত হবে।
প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদিসহ ভোট কেন্দ্রের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হচ্ছে।
মহেশখালী পৌরসভায় মেয়র প্রার্থী-৪ জন, ৯টি ওয়ার্ডে পুরুষ কাউন্সিল পদে-২১ জন, আর মহিলা কাউন্সিল পদে-১১ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পৌরসভায় মোট ভোটার সংখ্যা-২০,৪২৭ জন, পুরুষ ভোটার-১০,৭৯১ ও মহিলা ভোটার-৯,৬২৮ জন, ১০ টি কেন্দ্রে ৪৭ টি বুথ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে ভোট। পাশাপাশি কুতুবজোম, হোয়ানক, মাতারবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদের ব্যালেটে অনুষ্ঠিত হবে ভোট।
মহেশখালী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জুলকার নাঈম বলেন, রোববার সকাল থেকে ভোট কেন্দ্রগুলোতে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি পাঠানো শুরু হবে। ভোট নির্বিঘ্ন করতে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। আশা করছি ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে ভোট দিবেন।
মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘আমাদের সর্বমোট ১টি পৌরসভা ও ৩টি ইউনিয়নের প্রতিটি কেন্দ্রকেই আমরা গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি। প্রার্থীদের মধ্যে সাজ সাজ রব রয়েছে। ভোটাররা যাতে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে সেজন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। একাধিক জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট, তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট’সহ RAB, ৪ প্লাটন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (BGB), পুলিশ, আনচার থাকবেন, তাঁরা দেখবেন ঠিকঠাক নির্বাচন হচ্ছে কি না, কোথাও আইন ভঙ্গ হচ্ছে কি না। পাশাপাশি পুলিশের ভ্রাম্যমাণ দল থাকবে। সব মিলিয়ে আমরা বলতে পারি সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ, পরিচ্ছন্ন ভোটের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।
পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ স্বতঃস্ফূর্ত ভোট হবে-ইউএনও
এদিকে-ভোট কেন্দ্রের জন্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি প্রস্তুতের জন্য আজ সকাল থেকে ব্যস্ত সময় কাটাতে দেখা গেছে নির্বাচন কর্মকর্তাদের।

Share the post
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply